Home Industry Review Industry Review: Epyllion Group

Industry Review: Epyllion Group

আমাদের অহংকার, আমাদের সকলের অহংকার বলতে আমরা কি বুঝি?? অবশ্যই তৈরি পোশাক শিল্পের কথাই মনে পরছে সবার। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সবচেয়ে বড় খাত তৈরি পোশাক শিল্প। এই খাত হতে বাংলাদেশ প্রতি বছর ৩০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি করে এবং রপ্তানিকারক দেশ হিসেবে বিশ্বে ২য় স্থান দখল করে নিয়েছে।

আমরা যারা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার নিয়ে পড়ছি অর্থাৎ ভবিষ্যৎ টেক্সটাইলের কানডারি হতে চলেছি, সেই আমরা কোথায় নিজেদের সাফল্য গাথবো বা কোথায় জব করে নিজেদের ভবিষ্যৎ কে উচ্চ পর্যায়ে দেখার চেষ্টা করছি তা কি আমরা জানি??? আসুন আমাদের চাকরির জগৎ টা কিছুটা যেনে নেওয়া যাক। BGMEA সূত্র হতে জানা যায়, বর্তমানে ৪ হাজার কারখানার মধ্যে ১০ টি কারখানা বাংলাদেশের অহংকার হয়ে দাড়িয়েছে। সম্প্রতি কানাডাভিত্তিক বিজনেস ওয়েবসাইট বিজভাইভ ১০ টি শীর্ষ গার্মেন্টস নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। দেশের স্বনামধন্য ইপিলিয়ন গ্রুপ যেখানে নক্ষত্রের মত জ্বলজ্বল করছে ।

ইপিলিয়ন গ্রুপের যাত্রা শুরু করেন রিয়াজ ঊদ্দিন আল মামুন ১৯৯৪ সালে রেডিমেট গার্মেন্টস দিয়ে নিট অ্যাপারেল ম্যানুফেকচারিং ও এক্সপার্ট এর মাধ্যমে।প্রত্যেকটি কর্মকর্তা, কর্মচারীর পেশাদারিত্ব,উচ্চ দক্ষতা ও অনুপ্রেরণার দ্বারা জয়ের যাত্রা শুরু করে। যা বর্তমানে প্রকৃত অস্তিত্বপুর্ন এবং পুঞ্জীভূত একটি বিশাল প্রতিষ্ঠানে পরিনত হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজে রয়েছে নীট গার্মেন্টস, টেক্সটাইল, ওয়েট ডিপার্টমেন্ট এবং গার্মেন্টস এর আনুষাঙ্গিক সবকিছু। এই প্রতিষ্ঠানে রয়েছে উলম্বিক শৈল্পিক অংশের গার্মেন্টস ম্যানুফাকচারিং সুবিধা যা ওয়ান স্টপ সেবা নিশ্চিত করে বায়ারদের জন্য। এখন পর্যন্ত অসংখ্য দেশে পোশাক রপ্তানি করছে এই স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানটি। তন্মধ্যে অন্যতম ইউরোপ, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া সহ এশিয়া ও আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে।

ইপিলিয়ন গ্রুপের বিভিন্ন বিভাগ রয়েছে।নিজের পছন্দ এবং দক্ষতা অনুযায়ী জব খুজে নিতে যেটি সকলকে সাহায্য করে-

ডেকো নিটওয়্যার লিমিটেড (DKL)
ইপিলিয়ন নিটওয়্যার লিমিটেড (EKWL)
ডেজলিং ড্রেসেস লিমিটেড (DDL)
ইপিলিয়ন স্টাইল লিমিটেড (ESL)

ব্যাকওয়ার্ড লিঙ্কেজঃ

টেক্সটাইল ইউনিট-

ইপিলিয়ন নিটেক্স লিমিটেড (EKL)
ইপিলিয়ন ফেব্রিক লিমিটেড (EFL)

টেস্টিং ল্যাবরেটরি- ইপিলিয়ন টেস্টিং লিমিটেড (ETLL)

ওয়াশিং ইউনিট- ইপিলিয়ন ওয়াশিং ইউনিট (EWL)

অ্যাকসেসরি ইউনিট-

ইপিলিয়ন লিমিটেড (EPL) – Accessory Hub
ইপিলিয়ন লিমিটেড (EPL) – C & F

আবাসনঃ নিনা হোল্ডিং লিমিটেড (NHL)

খাদ্য এবং পানীয় ইউনিটঃ ইপিলিয়ন ফুড এবং বেভারেজ লিমিটেড (EFBL)

রিটেইল বিজনেসঃ ইপিলিয়ন হোল্ডিং লিমিটেড (EHL)

এই প্রতিষ্ঠানে কর্মচারীরা কেন চাকরি করতে আকৃষ্ট হয়ঃসব প্রতিষ্ঠান থেকে একটাই অভিযোগ পাওয়া যায়,কর্মচারীদের সঠিকভাবে পারিশ্রমিক না দেওয়া।কিন্তুু এখানে অস্থায়ী কর্মকর্তাদের সপ্তাহ শেষ হতেই পারিশ্রমিক দিয়ে দাওয়া হয় এবং স্থায়িদের মাস শেষ হতেই দেওয়া হয়।শ্রমিক দের শারীরিক সুরক্ষা হিসেবে কাজের সময় personal protective equipment (PPE) দেওয়া হয়। তার সাথে রয়েছে স্বাস্থ্যকর পরিবেশ, বর্জ্যের সঠিক ব্যবস্থাপনা,যেকোনো অনিশ্চিত দুর্ঘটনা প্রতিরোধের সুব্যবস্থা এবং দুর্ঘটনা পরবর্তী সঠিক চিকিৎসা সুবিধা।প্রতিষ্ঠানটি কখনো কোন কর্মীর ব্যক্তিগত এবং কার্যগত কোন গোপনীয়তা ভঙ্গ করেনা।শারীরিক নির্যাতন, চুরি,অর্থসংক্রান্ত দুর্নীতি এবং কর্মীদের সেক্সুয়াল নির্যাতনের ক্ষেত্রে Zero Tolerance নিয়ম জারি রয়েছে। কর্মচারীদের অধিকার রক্ষা করেই সকল নিয়ম মেনে চলছে এই স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানটি।

ব্যবসাক্ষেত্রে আপোষহীন ইপিলিয়ন গ্রুপঃ

ইপিলিয়ন প্রতিষ্ঠানটি দুর্নীতিমুক্ত।সকল প্রকার রাজনীতিমুক্ত এবং সামাজিক দ্বায়বদ্ধসম্পন্ন।প্রতিষ্ঠানটি নিজের কাছেই প্রতিজ্ঞাবদ্ধ সকল অর্থনৈতিক, সামাজিক এবং পরিবেশগত শৃঙখলতা রক্ষার বিষয়ে।যেকোনো প্রকার অর্থনৈতিক, ব্যবসায়িক, লিগাল এবং কৌশলগত ব্যাপারে সর্বোচ্চ নৈতিকতা অবলম্বন করা হয় যেন যে কেউ বা যে কোন পার্টি প্রয়োজনীয় সঠিক তথ্য পেতে পারে এবং সর্বপরি আকৃষ্ট হয়।অফিস একাডেমিতে বা কাজ চলাকালীন কোন রকম ড্রাগ বা অ্যালকোহল জাতীয় জিনিস সেবন নিষিদ্ধ।

প্রাতিষ্ঠানিক বন্ধন ও ব্যবহারঃ

প্রতিষ্ঠানটিতে টিম মেম্বারদের মধ্যে সৎ,শদ্ধা এবং খোলামেলা বন্ধুত্তসুলভ সম্পর্ক রয়েছে। যেকোন সমস্যায় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয় অন্যজন। এখানে ভালো কাজের পুরস্কার স্বরুপ দেওয়া হয় ক্যাশ, গিফট, সার্টিফিকেট বা গিফট প্যাকেজ। রয়েছে বিজনেস কন্ট্রাক্ট এ বিদেশে যাওয়ার অনন্য সুযোগ। কাজের ক্ষেত্রে কর্মীদের থেকে জোরপুর্বক কোন কন্ট্রাক্ট এ সাইন করিয়ে নেওয়া হয়না।

ইপিলিয়ন গ্রুপের নিজস্ব কিছু নিয়মঃ

এই প্রতিষ্ঠানটি যেভাবে বিদেশের মাঠে নিজেদের স্বকীয়তা বজায় রেখেছে তেমনি দেশের মাটিতেও তাদের নিজস্ব কিছু নিয়ম আছে। দেশের শিশু আইন মোতাবেক কোন শিশু শ্রমিক এই প্রতিষ্ঠানে কাজে লাগানো নিষিদ্ধ। এখানে কোন শ্রমিককেই জোরপুর্বক কাজ করানো হয়না।শ্রমিক আইন মোতাবেক এই প্রতিষ্ঠানে দিনে সর্বোচ্চ ১০ ঘন্টা এবং সপ্তাহে ৬০ ঘন্টার বেশি কাজ করানো হয়না।এই প্রতিষ্ঠানে প্রাতিষ্ঠানিক জিনিসপত্র ব্যবহারে যথেষ্ট সজাগ থাকা বাধ্যতামুলক করা হয়েছে। কোন তথ্য লিক হলে তার দায়স্বরুপ প্রতিষ্ঠান কঠিন পদক্ষেপ নিতে পারবে।

ইপিলিয়ন গ্রুপ আজ এই অবস্থানে দাড়িয়ে আছে দক্ষ জনবলের মাধ্যমে। দক্ষ কর্মচারীবৃন্দ, সরবরাহকারী এবং বায়ারদের অক্লান্ত এবং নিঃশ্বার্থ পরিশ্রমের মাধ্যমে। ইপিলিয়ন গ্রুপ এবং তার সাথে জড়িয়ে থাকা সকল আত্তার স্বপ্ন ইপিলিয়ন গ্রুপকে সর্বোচ্চ শিখরে দেখার। শুধু তাই নয় এর সাথে জড়িয়ে থাকা সকল কর্মকর্তা, কর্মচারী, সরবরাহকারী,বায়ার এবং সকলের জীবনযাত্রার মানের পরিবর্তন আনা।

তথ্যসূত্রঃ Wikipedia,প্রথম আলো,বার্তা ২৪.কম

Writter Information:

Jeba Yasmin Borsha
Dept. of Apparel Engineering
Dr. M A Wazed Miah Textile Engineering College Pirgonj, Rangpur

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Post

Most Popular

Related Post

Related from author