অ্যাপ্পারেল রিভিউ: Leggings

0
665

বর্তমানে মেয়েদের জনপ্রিয় ফ্যাশনেবল একটি পোশাক হচ্ছে Leggings যার প্রচলন শুরু হয় ইউরোপের দেশ গুলোতে ত্রয়োদশ শতাব্দীর প্রথমদিকে। তখনকার কাউবয়রা (রাখাল বালক) ঘোড়ায় চড়ে গরু, ছাগল, ভেড়া নিয়ে দূরবর্তী সমতল তৃণভূমিতে যেত কচি ঘাসের জন্য। দীর্ঘসময় ঘোড়ায় চড়ার করার কারনে তাদের পায়ের চামড়া গুলো ছিলে যেত এই পায়ের চামড়া ছিলে যাওয়া থেকে তারা রক্ষা পাওয়ার জন্য হরিনের চামড়া দিয়ে সুরক্ষিত টাইট প্যান্ট এবং মোজা বিশেষ তৈরি করে পরিধান শুরু করে। এরপর উনিশ শতকের গোড়ার দিকে Leggings এর ধারণাটি আসে এবং পরে ১৯৬০ এর দিকে এটি খুব জনপ্রিয়তা লাভ করে। আস্তে আস্তে তা সমগ্র বিশ্বে ছড়িয়ে পরে।

➤ লেগিংস কি এবং কারা এই লেগিংস পরিধান করে থাকে:

​মূলত লেগিংস বা আঁটসাঁট পোশাকগুলি হল সেগুলি, যা স্থিতিস্থাপক, আঁটসাঁট, আরামদায়ক এবং লাইটওয়েট বা ওজনে হালকা। Leggings মেয়েদের পোশাক। Leggings শরীরের সাথে একদম আঁটসাঁট হয়ে লেগে থাকে। জিমে ব্যয়াম করার সময় পরিধান করার জন্য এগুলি খুব জনপ্রিয় এবং আরামদায়ক। অনেক সময় এগুলি ট্রাউজার হিসাবেও ব্যবহৃত হয় এবং বর্তমানে এগুলি পায়জামার পরিবর্তে ব্যপক ব্যবহৃত হয়ে আসছে। বর্তমানে মেয়েরা এগুলি টপস, ডেনিম জ্যাকেট, স্কার্ট এবং আরও কিছু সাথে পরিধান করছে। লেগিংস হালকা ওজন হওয়ায় বহন করা খুব সহজ এবং আরামদায়ক হবার ফলে দিন দিন এর চাহিদা বেড়েই যাচ্ছে। বর্তমানে লেগিংস ফ্যাশনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশে পরিণত হয়েছে।

আসুন লেগিংস কেনার আগে জেনে নেয়া যাক এর ফেব্রিক সম্পর্কে।কি কি ফেব্রিক দিয়ে লেগিংস তৈরি করা হয় তার একটি স্বচ্ছ ধারণা নিচে উল্লেখ করা হল। লেগিংস সুতি, পলিয়েস্টার, নাইলন, লেদার এবং উলের ফেব্রিক নিয়ে তৈরি করা যায়।

➤➤ সুতি-ফেব্রিক: ১০০% সুতি কাপড় দিয়ে তৈরি করা যেতে পারে। এইগুলো খুব নরম এবং পরতে আরামদায়ক। তবে ১০০% সুতির লেগিং এর প্রধান সীমাবদ্ধতা এটি প্রসারিত বা স্ট্রেচেবল নয়। নৈমিত্তিক পরিধানের জন্য সুতির লেগিংস ভাল কিন্তু যখন সুতি ফ্যাব্রিক স্প্যানডেক্সের সাথে মিশ্রিত করা হয়, তখন এটি স্থিতিস্থাপক বৈশিষ্ট্য পায় যা এটিকে প্রত্যহ পরিধানের জন্য উপযুক্ত করে তোলে।

➤➤ পলিয়েস্টার-ফেব্রিক: পলিয়েস্টার, লেগিংসের জন্য একটি জনপ্রিয় কাঁচামাল। পলিয়েস্টার দিয়ে তৈরি লেগিংগুলি হালকা ওজন, ময়লা প্রতিরোধী এবং অত্যন্ত টেকসই যা এটিকে সক্রিয় পরিধানের জন্য খুবই জনপ্রিয় করে তুলেছে। এটিকে আরও আরামদায়ক করার জন্য স্প্যানডেক্স এবং পলিয়েস্টারের একত্রে ব্লেন্ডিং ঘটিয়ে লেগিংস তৈরি করা হয়।

➤➤ লেদার-ফেব্রিক: লেগিংসের জন্য চামড়া যখন কাঁচামাল হিসাবে ব্যবহৃত শুরু হয় তখন তা পণ্যটিকে আভিজাত্য এবং স্বতন্ত্রতা প্রদান করে। এই লেগিংসগুলি তৈরি করতে সাধারণত বিভিন্ন ধরনের পশুর চামড়া ব্যবহার করা হয়। এগুলি টেক্সচার অনেক ভাল হয়ে থাকে যা সাধারনত সোয়েটার, জ্যাকেট বা বাইরের পোশাকের সাথে মেয়েরা পরে থাকে।

➤➤উল-ফেব্রিক: উলের তৈরি লেগিংস শীতল আবহাওয়ার জন্য উপযুক্ত কারণ তা শরীরকে উষ্ণ রাখে।

➤➤ নাইলন-ফেব্রিক: নাইলন লেগিংসের জন্য জনপ্রিয় একটি কাঁচামালও। লেগিংস তৈরির ক্ষেত্রে নাইলন-স্প্যানডেক্স ব্লেন্ডিং করে ব্যবহৃত হয় যা এটিকে আরো আরামদায়ক, টেকসই, ময়লা প্রতিরোধী, হালকা ওজনের করে তোলে।

➤ এখন এই পরিধেয়, লেগিংস এর প্রকারভেদ নিয়ে আলোচনা করা যাক। ফেব্রিক, ডিজাইন এবং দৈর্ঘ্যের ভিত্তিতে অনেক রকম লেগিংস পাওয়া যায় তবে সেগুলার মধ্যে এই ১০ ধরনের লেগিংস অত্যন্ত জনপ্রিয়।সেগুলা তুলে ধরা হলঃ-

১। ফুটেট-লেগিংস
২। ফুল লেন্থ-লেগিংস
৩। মিড লেন্থ-লেগিংস
৪। নী লেন্থ-লেগিংস
৫। জেগিংস
৬। লেদার-লেগিংস
৭। প্রিন্টেড-লেগিংস
৮। রিপড-লেগিংস
৯। শিনী-লেগিংস
১০। স্ট্র্যাপ-লেগিংস

​১। ফুটেট লেগিংস:

এগুলা মোটা ফেব্রিকের তৈরি। এটি কোমড় থেকে পায়ের পাতা পর্যন্ত ঢেকে রাখে। এই লেগিংস পরলে একই সাথে তা পায়ের মোজার কাজ করে থাকে। এটি পরিধান করলে জুতোর সাথে আলাদা করে মোজা পরতে হয় না এবং এটি শীতের মৌসুমে খুব জনপ্রিয়। এগুলি সাধারনত শর্টস এবং স্কার্টের সাথে পরা হয়।

​২। ফুল লেন্থ লেগিংস:

এই লেগিংস কোমড় থেকে গোড়ালি পর্যন্ত অংশটুকু কভার করে থাকে। এগুলি সব মৌসুমেই ব্যবহার করা যায় তবে শীত মৌসুমের চেয়ে গরম মৌসুমে এটি বেশি পছন্দনীয়। অনেক সময় এগুলি জিন্সের বিকল্প হিসেবেও ব্যবহার হয়। এগুলি শার্ট, সোয়েটার, জ্যাকেট এবং ব্লেজারের সাথে পরিধানযোগ্য।

৩। মিড লেন্থ লেগিংস:

এই লেগিংস গুলির লেন্থ কোমর থেকে শুরু হয়ে হাঁটুর ৫/৬ ইঞ্চি নিচ পর্যন্ত এবং গোড়ালি থেকে ৫/৬ ইঞ্চি উপর পর্যন্ত হয়ে থাকে। এগুলি কাজ করার সময় দুর্দান্ত এবং উষ্ণ আবহাওয়ার জন্য উপযুক্ত। এগুলি কুর্তি এবং স্কার্টের সাথে পরিধান করা যায়।

৪। নী লেন্থ লেগিংস:

এই লেগিংস গুলি সবচেয়ে ছোট লেন্থের লেগিংস যা শুধুমাত্র কোমর থেকে হাঁটুর সামান্য নীচকে আবৃত করে রাখে। এগুলি নাচ, যোগব্যায়াম, জিমন্যাস্টিকদের জন্য বেশি উপযোগী।

৫। জেগিংস:

এগুলি মূলত জিন্স এবং লেগিংস এর সংমিশ্রণে তৈরি কমন একটি পোশাক। এগুলা অনেকটা সাধারণ জিন্স প্যান্টের মত হলেও এগুলা জিন্স প্যান্ট না। এগুলার দৈর্ঘ্য গোড়ালির সামান্য উপর পর্যন্ত। জেগিংস শর্টস, টপস, জ্যাকেট, টি-শার্টের সাথে সব মৌসুমেই পরিধানযোগ্য।তবে এগুলা শীতকালেই বেশি জনপ্রিয় ও ফ্যাশনেবল পোশাক হিসেবে পরিচিত।

৬। লেদার লেগিংস:

নিত্য-নৈমিত্তিক পরিধানের জন্য এই লেগিংসগুলি সাধারণত পশুর চামড়া এবং কৃত্রিম চামড়া দিয়ে তৈরি করা হয়। ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় চামড়া দিয়ে তৈরি এই লেগিংসগুলি সবার প্রথম পছন্দ। এগুলি চকচকে, ভালো টেক্সচারের এবং ফ্যাশনেবল বিধায় এগুলি জ্যাকেট, শার্ট, টপস এবং সোয়েটারের সাথে সবসময় পরা যায়।

৭। প্রিন্টেড লেগিংস:

এই লেগিংসগুলি প্রিন্ট করা। বাহারি রঙিন কাপড় এবং নান্দনিক ডিজাইন সবাইকে আকৃষ্ঠ করে। এগুলি ফুল, পাতা, চিতাবাঘ, পাখি ইত্যাদি ডিজাইনে প্রিন্ট করা হয়ে থাকে। এগুলি সব মৌসুমেই রঙিন টপসের সাথে পরিধানযোগ্য।

৮। রিপড লেগিংগ:

এই লেগিংসগুলিতে ফ্যাশনেবল এবং ট্রেন্ড অনুযায়ী হাঁটুতে আড়াআড়ি ভাবে গ্রাইন্ডিং করে সার্ফেস ফিনিশিং দেওয়া হয়। এগুলি মেয়েরা নিত্য-নৈমিত্তিক পরিধান এবং পার্টিতে পরিধান করে থাকে। রিপড লেগিংসের কালারের জন্য গাঢ় কালো রঙ আদর্শ হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে।

৯। শীনি লেগিংস:

এই লেগিংসগুলি পলিয়েস্টার, নাইলন এবং ইলাস্টনের সাথে সংমিশ্রণ ঘটিয়ে তৈরি করা হয়ে থাকে। এগুলা দেখতে কালো, সিলভার, সোনালী এবং মেরুন রংয়ের হয়ে থাকে। ডিস্কো, পার্টি বা ক্লাবে পরিধানযোগ্য চকচকে এই লেগিংস বেশ জনপ্রিয়।

‌​১০। স্ট্র্যাপ লেগিংস :

শুরুর দিকে এই লেগিংস ঘোড়ায় চড়ার জন্য বিশেষ করে নকশা করা হয়েছিল। কেননা শুরুর দিকে ঘোড়ায় চড়ার সময় পা রাখার লোহার আংটায় পায়ের পাতা লেগে গিয়ে ক্ষত হতো। তখন এই ক্ষত থেকে সুরক্ষার জন্য পায়ের পাতার অংশটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছিল যাতে ঘোড়ায় চড়ার সময় যেন পায়ের পাতা আচ্ছাদিত থাকে। পরবর্তীতে এটি ফ্যাশনের একটি অংশ হয়ে ওঠে। এখন এটি স্পোর্টসওয়্যার হিসেবে পরিধানের জন্য জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

Writer information:

Md. Murad Hassan 
Primeasia University
Batch: 192
Campus Core Team Member (TES)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here