Home Career আইপিই ( ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং) এর রিভিউ

আইপিই ( ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং) এর রিভিউ

আইপিই” এর পূর্ণ নাম ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইন্জিনিয়ারিং; বাংলায় শিল্প ও উৎপাদন প্রকৌশল । একে ইঞ্জিনিয়ারিং এর BBA বলা হয়ে থাকে, কারণ- আইপিই হল ইঞ্জিনিয়ারিং আর ম্যানেজমেন্ট এর সেতুবন্ধন- এক কথায় ইঞ্জিনিয়ারিং ম্যানেজমেন্ট বললেও ভুল হবে না,যা বর্তমানে বাংলাদেশে ইঞ্জিনিয়ারিং জগতে এক আলোচিত সাবজেক্ট।
Civil, Mechanical, Electrical এবং CSE এর মতো Industrial and Production Engineering সাবজেক্ট বাংলাদেশের মানুষের কাছে খুব একটা পরিচিত সাবজেক্ট না। কারণ- বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এটি প্রায় নতুন একটি সাবজেক্ট।

বিষয়বস্তুঃ
IPE deals with 3M;
M = Man,
M = Machine,
M = Material.
ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে কিভাবে নিজেকে অন্য জনের সামনে present করা, নতুন নতুন planning, industrial process, lay out তৈরি করা, স্বল্প জনশক্তি ও Limited Resource নিয়ে অসাধারন প্ল্যানের মাধ্যমে কোন ইন্ডাস্ট্রির সর্বোচ্চ Output নিশ্চিত করাই একজন IPE ইঞ্জিনিয়ারের কাজ।
চাহিদাঃ
আমাদের দেশে ইঞ্জিনিয়ারদের শেখানো হয় মেশিন কিভাবে কাজ করে, কিভাবে মেশিন তৈরি করা হয় এবং আরো অনেক কিছু। কিন্তু সত্যি বলতে গেলে দেশে বড় বড় মেশিন তৈরি না করে বাহির থেকে কিনে বা আমদানি করে এনে production এর দিকে ঝোঁক দেওয়া হয় বেশি। এক্ষেত্রে আমরা তাদের থেকে শুধু মেশিন সেট আপের সহযোগিতা পেলেও কিভাবে সেই মেশিন ব্যবহার করে productivity বৃদ্ধি করতে পারি, কিভাবে একটি ফ্যাক্টরীর লে-আউট তৈরি করা হয়,যাতে সবচেয়ে কম material movement করে production করা যায়,, কোন process গুলো প্রয়োগ করে quality বাড়িয়ে product effect কমানো যাবে- এগুলো কেউ বলে না।
কিন্তু এগুলো IPE বলে দেয় বিধায় সকল মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিতে IPE ইঞ্জিনিয়ারের চাহিদা ব্যাপক। দেশের বাইরে IBM, Microsoft, Intel এর মতো বিশাল সব ইন্ডাস্ট্রিতে আছে এর চাহিদা।
ভবিষ্যৎ:
একই সাথে বিজনেস ম্যানেজার এবং প্রডাকশন ইঞ্জিনিয়ারের কাজ একজন IPE ইঞ্জিনিয়ারকে দিয়ে করানো সম্ভব বলে ভবিষ্যতেও এর ব্যাপক চাহিদা থাকবে এটা বোঝাই যায়। BBA, MBA এর দূর্দান্ত পারফরমেন্সের এই যুগে IPE এর চাহিদা আরো বাড়বে।

আইপি ইঞ্জিনিয়ারের কাজ :
একজন আইপিই ইঞ্জিনিয়ারকে একটি শিল্প-কারখানা ও প্রতিষ্ঠানে লোকবল নিয়ন্ত্রণ, দক্ষ জনবল তৈরি ও জনবলের সঠিক ব্যবহার, যন্ত্রপাতির সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিতকরণ, আধুনিক যন্ত্রপাতির সমন্বয়, প্রশাসন, বাজারজাতকরণ, মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা, বিপণন পরিকল্পনা, পণ্য ও যন্ত্রপাতির নিরাপত্তা-মানোন্নয়ন প্রভৃতি কাজ করতে হয়।
এছাড়া Optimization এর বিষয়ে বিশেষভাবে লক্ষ্য রাখতে হয় একজন আইপি ইঞ্জিনিয়ারকে। Limited input তথা সীমিত জনবল,অর্থ, নিয়ে কাজ করে সর্বাধিক আউটপুট পাওয়াই হল অপটিমাইজেশন।একটা কোম্পানির সামগ্রিক অবস্থা চিন্তা করে কেমন লোকবল লাগবে বা কোনো প্রোডাক্টের কাঁচামালের বিষয় থেকে বাজারের অবস্থা সবকিছুর বিষয়েই সুনিপুণ জ্ঞান থাকে একজন আইপিই ইঞ্জিনিয়ারের।
একজন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারের কাছে একটি মেশিন হল হার্ডওয়্যার,একজন অর্থনীতিবিদের কাছে মেশিনটি হল আর্থিক সম্পদ যার হিসাব হয় লাভ ক্ষতির মাধ্যমে, অর্থাৎ,এটি বাজারে থাকলে লাভ হবে নাকি ক্ষতি হবে।কিন্তু, একজন আইপি ইঞ্জিনিয়ারের কাছে এটি প্রোডাকশন রিসোর্স। তাকে একই সাথে মেশিনটি চালাতে এবং ম্যানেজ করতে জানতে হয়,জানতে হয় মেশিনটি কিভাবে ব্যবহার করে কম খরচে সর্বাধিক উৎপাদন পাওয়া সম্ভব।

যা পড়ানো হয় আইপিই তে :
আইপিই তে কোর্স হিসেবে Manufacturing process, Product Design and development,, Operation Research, CAD, Engineering Economics, ইঞ্জিনিয়ারিং স্ট্যাটিসটিক্স, Industrial Management,, Operation Management,, Project Management,Total Quality Management,, Supply Chain Management, HR Management, Quality Control, Engineering Mechanics, থার্মোডায়নামিক্স & হিট ট্রান্সফার, অর্গানাইজেশনাল বিহেভিয়ার, হিউম্যান ফ্যাক্টর ইঙ্গিনিয়ারিং, ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিম্যুলেশন, ফ্লুইড মেকানিকস, Machine tools, Machine Design, Fundamentals of Electric Circuit Analysis, Electrical Machines, C Programming, Numerical Analysis সহ আরও অনেক বিষয় পড়ানো হয়।
আইপিই ইঞ্জিনিয়ারকে ম্যানেজমেন্টের কোর্সও পড়তে হয়।
এখানেই অনেকে আইপিই আর বিবিএ কে এক করে ফেলার মত বিশাল ভুলটি করে।সায়েন্টিফিক প্রবলেম সলভ করার পাশাপাশি সকল কিছু ম্যানেজ করার গুরুদায়িত্ব পালন করে একজন আইপি ইঞ্জিনিয়ার।সায়েন্টিফিক্যালি চিন্তা করে প্রতিটি পদক্ষেপ নিতে হয় তাকে।অর্থাৎ Science and management are combined here in IPE.আর এখানেই বিবিএ আর আইপিই এর পার্থক্য।

উচ্চশিক্ষা গ্রহণের ক্ষেত্রেও রয়েছে অপার সম্ভাবনা, দেশে-বিদেশে দুই জায়গাতেই রয়েছে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের সুযোগ।


স্কলারশীপ ও উচ্চশিক্ষাঃ
Georgia Institute of Technology, University of Michigan Ann Arbor, California, Virginia সহ অধিকাংশ খ্যাতনামা ও মাঝারি মানের বিশ্ববিদ্যালয়ে Engineering Management বা Industrial engineering and management নামে IPE এর প্যারালাল সাবজেক্ট আছে। পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যেমন- আলীগড় বিশ্ববিদ্যালয় ভারত, ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়া ইত্যাদিতে IPE সমমানের কোর্স পড়ানো হয়।

কর্মক্ষেত্রঃ
ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইন্জিনিয়ারিং শোনার সাথে সাথেই অনেকে বলে ফেলবে- “ও আচ্ছা, ইন্ডাস্ট্রিতে জব করবে?” কিন্তু কথাটি সম্পূর্ণ ঠিক নয়।
তো চলুন জেনে আসি IPE কর্মক্ষেত্রঃ
১। British American Tobacco (BAT), Nestle, Unilever, Chevron, Lafarge Surma, Unilever, Grameen Phone, Banglalink ইত্যাদি মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানীতে।
২। প্রোডাকশন কোম্পানি, ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি, গার্মেন্টস ইত্যাদিতে Management Engineer হিসেবে।
৩। যেকোন কোম্পানি বা ইন্ড্রাস্ট্রিতে Management বা Business Executive হিসেবে।
ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ম্যানেজমেন্টের সমন্বয় হওয়ায় চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে প্লাস পয়েন্ট হিসেবে কাজ করে।কারন কোম্পানি যখন একই ব্যক্তির মধ্যে দুটি গুণ একই সাথে পাবে তখন কে তাকে হাতছাড়া করতে চায়!!! টেক্সটাইল ,গার্মেন্টস সেক্টরে রয়েছে আইপি ইঞ্জিনিয়ারের প্রচুর চাহিদা। আইপি ইঞ্জিনিয়ারের প্রধান প্রধান কর্মক্ষেত্রগুলো হল : Manufacturing, Production, Apparel, Industrial Processing, Engineering Management, Business, Safety, মেইন্টেইনেন্স, Energy , Medical, Supply Chain Management ইত্যাদি। উদ্যোগতাদের জন্য খোলা রয়েছে অসীম সম্ভাবনার দুয়ার।একজন দক্ষ আইপি ইঞ্জিনিয়ারকে চাকরির জন্য ছুটতে হয় না,চাকরিই তাকে খুঁজে নেয়।

আইপিই’র সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য দিকটা হচ্ছে এটাই যে আইপিই শেখায় কিভাবে নিজেকে প্রেজেন্ট করতে হয়। বেশিরভাগ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্র্যাজুয়েটদের একটা কমন সমস্যা থেকে যায় যা হচ্ছে তারা অনেক কিছু জানলেও দেখা যায় তা দশজনের সামনে বলে উঠতে পারেনা, হয়তো ঐ দশজনের চেয়ে সে কিছুমাত্র কম না বরং বেশিই জানে কিন্তু প্রকাশ করতে পারে তার সামান্যটুকুই। আইপিই এক্ষেত্রেই অন্যদের থেকে ব্যতিক্রম। আইপিই শিখিয়ে দেয় কিভাবে দশজনের মাঝখানে দাঁড়িয়ে নিজের কথাটুকু বলতে হয়, কিভাবে অন্যদেরকে বিশ্বাস করিয়ে ফেলানো যায় যে তোমাকেই তাদের দরকার, তুমিই পারবে!

মেয়েদের পড়ার জন্য আইপিই অনেক সুন্দর একটি বিষয় । অনেক মেয়েই মনে করে থাকে আইপিই জব সেক্টর ফেস করা তাদের পক্ষে একটু কষ্টকর। কিন্তু দেখা গেছে অনেক ক্ষেত্রে মেয়েরাই বেশী এগিয়ে। আইপি ইঞ্জিনিয়ারদের অধিকাংশ কাজ কাগজ-কলম ও কম্পিউটারে। এজন্য আইপিই মেয়েদের জন্য একটি যুগপযোগী সাবজেক্ট । নিজের সুন্দর ও উজ্জ্বল ভবিষ্যত রচনায় আইপিই হতে পারে ব্যাপক সহায়ক।

বর্তমান সময়ে প্রকৌশল শিক্ষার প্রভাব পৌঁছে গেছে সারা বিশ্বে। আমাদের দেশও এই বলয়ের বাইরে নয়। আর অসংখ্য প্রকৌশল শিক্ষার ভেতরেও কিছুটা ভিন্ন ধরনের প্রকৌশল শিক্ষা এই ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং। নেতৃত্বগুন, সাবলীল চিন্তাভাবনা আর সৃষ্টিশীল মনোভাব এ পেশায় একজন মানুষকে এনে দিতে পারে অবারিত উন্নতি। আর আকর্ষনীয় জীবনের উদাহরন হিসাবে টিকে আছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারদের ক্যারিয়ার।
বর্তমানে বাংলাদেশে বুয়েট, রুয়েট, কুয়েট, সাস্ট, যবিপ্রবি, আহসানুল্লাহ ও বিএইউএসটি তে আইপিই পড়ানো হয়ে থাকে। বুয়েটে সিট সংখা-৩০, রুয়েট-৬০, কুয়েট-৬০, সাস্ট-৫০, যবিপ্রবি-৩৫, আহসানুল্লাহ-১০০,এমআইএসটি-১০০ এবং বিএইউএসটি তে- ১০০ টি আসন রয়েছে। বিএইউএসটি নতুন বিশ্ববিদ্যালয় হলেও সৈয়দপুর ক্যান্টরমেন্ট বাংলাদেশ আর্মি এর একমাত্র ইলেকট্রিকাল &মেকানিক্যাল ছেন্টার হওয়ায় বিএইউএসটি আইপিই-তে ল্যাব ফ্যাসিলিটি ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা যথেষ্ট ভাল।

তাই লক্ষ যদি হয় IPE তবে এখন থেকেই নিজেকে প্রস্তুত করতে হবে।
ভবিস্ততের IPE ইঞ্জিনিয়ার দের জন্য রইল শুভ কামনা

তথ্যসূত্রঃ- উইকিপিডিয়া
দৈনিক সংবাদপত্র

Writer Info:-

Ateeya Jahan Labonno

Department of IPE
NITER

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Post

Most Popular

Related Post

Related from author

error: Content is protected !! Don\\\\\\\\\\\\\\\'t Try to Copy Paste.