Monday, July 15, 2024
More
    HomeDyeingওয়েট প্রসেসিংয়ে এনজাইমের ব্যবহার

    ওয়েট প্রসেসিংয়ে এনজাইমের ব্যবহার

    আমরা জানি, টেক্সটাইল প্রসেসিংয়ের গুরুত্বপূর্ণ একটি ধাপ হচ্ছে ওয়েট প্রসেসিং যেখানে ওভেন ফ্রেবিককে ব্যবহার উপযোগী কাপড়ে পরিণত করা হয় । এই প্রক্রিয়ায় প্রচুর পরিমাণ পানি ব্যবহার করা হয় । আর এ কারণেই , টেক্সটাইল শিল্প পানি ব্যবহারের দিক দিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে । প্রতিদিন প্রায় ২০০০০০- ৩০০০০০ গ্যালন পানি লাগে একটি টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রিতে । এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের রাসায়নিক পদার্থসমূহের দরকার হয় । বিভিন্ন ধাপে এই রাসায়নিক পদার্থসমূহ ব্যবহারের পর যন্ত্রপাতি ধৌত করতে প্রচুর পানির দরকার হয় । এর ফলে এই রাসায়নিক পদার্থ সমন্বিত পানি বিষাক্ত এবং দূষিত পানিতে পরিণত হয়ে পরিবেশ দূষণ করে । তাছাড়াও প্রচুর পরিমান তাপশক্তি ও মেশিনারিজ যন্ত্রপাতি ব্যবহার করা হয় ওয়েট প্রসেসিংয়ের বিভিন্ন ধাপ গুলোতে। অর্থাৎ বিপুল পরিমাণ শক্তির প্রয়োজন হয় এই প্রক্রিয়ায় ।

    কিন্তু যদি এই ধাপগুলোতে বিভিন্ন এনাজাইম ব্যবহার করা হয়, তাহলে সহজেই শক্তির পরিমাণ কমিয়ে আনা যাবে । পাশাপাশি পানি ও রাসায়নিক পদার্থের ব্যবহারও অনেকাংশে কমে যাবে । যার ফলে উৎপাদন খরচ এবং পরিবেশ দূষনের মাত্রাও কমবে ।

    এনজাইম হচ্ছে অবিষাক্ত , পরিবেশবান্ধব এবং জৈবিক প্রভাবক যা রাসায়নিক বিক্রিয়ার জন্য যে শক্তির প্রয়োজন তা কমিয়ে দেয় । ফলে শক্তির প্রয়োজন কম হয় রাসায়নিক প্রক্রিয়াসমূহ তে । পাশাপাশি রাসায়নিক পদার্থসমূহের ব্যবহার কমিয়ে দেয় যা অর্থ সাশ্রয়ী । আর এ কারণেই এনজাইমের ব্যবহার টেক্সটাইল শিল্পের জন্য এক নতুন দ্বার হিসেবে উন্মেচিত হয়েছে ।

    এনজাইম ব্যবহারের সুবিধাসমূহ হলোঃ
      ডিসাইজিং : ডিসাইজিংয়ে স্টার্চ দূর করতে অ্যামাইলেজ এনজাইম ব্যবহার করা যেতে পারে , অ্যামাইলেজ সহজেই স্টার্চকে ভেঙ্গে ফেলে ডাইস্যাকারাইডে পরিণত করে এবং স্টার্চ দূরীভূত করে । যার কারণে আর এসিড বা ক্ষার ব্যবহার করতে হয় না । ফলে ফাইবারে ক্ষতি কম হয় এবং পরিবেশের ওপর বিরুপ প্রভাব ফেলে না ।

    ➡ স্কাওয়ারিং : স্কাওয়ারিং প্রক্রিয়াটিতে প্রোটিয়েজ, পেকটিনেজ,সেলুলেজ ইত্যাদি এনজাইম সমূহ ব্যবহার করা যায় । এ এনজাইমগুলো ব্যবহার করলে ক্ষার এবং ডিটারজেন্টের দরকার হবে না । ফলে প্রক্রিয়াটি জৈবিক উপায়ে সম্পন্ন করা যাবে।যার কারণে শক্তি সাশ্রয় হবে এবং খরচ কমবে ।

    ➡ ব্লিচিং: ডেনিম ব্লিচিং করার জন্য Laccase নামক এনজাইম ব্যবহার করা হয় । যা ব্লিচিংয়ে ডেনিমের ক্ষয় রোধ করে এবং কাঙ্খিত উজ্জ্বলতার ডেনিম পেতে সহায়তা করে ।

    ➡ ওয়াশিং: ক্যাটালেজ এনজাইম ব্লিচিংয়ে অবশিষ্ট থেকে যাওয়া হাইড্রোজেন পার-অক্সাইড দূর করে এবং ডায়িং এর সমরুপতা ধরে রাখে ।

    ➡ ফিনিশিং :সেলুলেজ এনজাইম কটনের কাপড়সমূহ মসৃণ করতে ব্যবহার করা হয় । এছাড়া কাপড়ে লেগে থাকা অতিরিক্ত এবং আলগা সুতাসমূহ দূর করে । এটি একটি জৈবিক -মসৃণ প্রক্রিয়া যা কটনকে মসৃণতা দান করে এবং সুতার কোনো ক্ষতি করে না । একইভাবে এস্টারেজ,লাইপেজ এবং Cutinases এনজাইম সোডিয়াম হাইড্রোঅক্সাইডের (NaOH) পরিবর্তে ব্যবহার করা যায় পলিইথিলিন টেরেপথ্রালেট(Polyethylene Terephthalate) ফ্রেবিকের মসৃণতা এবং আর্দ্রতা শোষন ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য ।

    পরিশেষে বলা যায়, আমাদের পরিবেশ প্রতিনিয়ত দূষিত হচ্ছে ব্যাপকভাবে । যার অনেকাংশ টেক্সটাইল শিল্পের বর্জ্যসমূহ থেকে হয়। টেক্সটাইল ডায়িং শিল্প পানি দূষণের দিক দিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। এক্ষেত্রে টেক্সটাইল শিল্পে এনজাইমসমূহের ব্যবহার নিশ্চিত করা গেলে, পানির ব্যবহার ও পানি দূষণ দুটোই কমবে পাশাপাশি উৎপাদন খরচ কমবে । এর ফলে পরিবেশের ওপর কোনো বিরুপ প্রভাব পড়বে না ।

    লেখকঃ
    মোহাম্মদ রাফি
    ডিপার্টমেন্ট অব ওয়েট প্রসেস ইঞ্জিনিয়ারিং
    ১ম ব্যাচ
    ড. এম.এ ওয়াজেদ মিয়া টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ,পীরগঞ্জ,রংপুর।

    RELATED ARTICLES

    1 COMMENT

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    - Advertisment -

    Most Popular

    Recent Comments