Home Campus News কো-কারিকুলার অ্যাকটিভিটিস নিয়ে নিটার হাল্ট প্রাইজ এর চতুর্থ লাইভ প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

কো-কারিকুলার অ্যাকটিভিটিস নিয়ে নিটার হাল্ট প্রাইজ এর চতুর্থ লাইভ প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

গত ১০ ডিসেম্বর ২০২০,রোজ বৃহস্পতিবার , রাত ৮ টায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল হাল্ট প্রাইজ অরগানাইজেশনাল কমিটি কতৃক আয়োজিত স্ট্রিমইয়ার্ড লাইভ সেশনের চতুর্থ পর্ব যেখানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোঃ রিফাতুর রহমান মিয়াজি (নিটার-৬ষ্ঠ ব্যাচ) যিনি বর্তমানে ডিভাইন গ্রুপ এর মার্কেটিং এন্ড ডেভেলপমেন্ট অফিসার হিসেবে কর্মরত আছেন। যিনি শিক্ষাজীবনে বিভিন্ন ক্লাব অ্যাকটিভিটি ও ইভেন্ট গুলোতে সবসময় অগ্রনী ভূমিকায় ছিলেন। এছাড়াও ছিলেন মোঃ. তানভীর হোসেন সরকার (৯ম ব্যাচ) ও মোঃ সালাউদ্দিন (৯ম ব্যাচ) তারা নিটারে আয়োজিত হাল্ট প্রাইজের অর্গানাইজিং কমিটিতে যথাক্রমে হেড অফ ব্রান্ড এন্ড মার্কেটিং ও স্টুডেন্ট আউটরিচ এন্ড এক্সপেরিয়েন্স বিভাগের দায়িত্বে রয়েছেন।

আয়োজিত ঐ অনুষ্ঠানে হোস্ট হিসেবে ছিলেন, মোবাশ্বেরা ফারদিন (৯ম ব্যাচ,টেক্সটাইল ডিপার্টমেন্ট), তার উপস্থাপনায় আমন্ত্রিত অতিথির কাছে দর্শকদের বিভিন্ন প্রশ্ন ও তার উত্তরে কার্যকরি ও তথ্যবহুল একটি সেশন সুন্দরভাবে অনুষ্ঠিত হয়।

শিক্ষাজীবনে পড়ালেখার পাশাপাশি পাঠ্যসূচী বহির্ভূত কাজকর্ম যা একই সাথে দক্ষতা বৃদ্ধি ও ব্যক্তিত্ব গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে কো-কারিকুলার অ্যাকটিভিটিস নামে যা অধিক পরিচিত।হাল্ট প্রাইজ সে ধারারই একটি বড় প্লাটফর্ম। নিজেকে মেলে ধরার জন্য এ সকল কাজে যুক্ত হওয়ার গুরুত্ব তুলে ধরার লক্ষ্যে এবারের সেশনের মূল বিষয় ছিলো “Co-curricular with @Hult-104”

উক্ত সেশনে আমন্ত্রিত অতিথি জনাব রিফদতুর রহমান বলেন, শুধু সার্টিফিকেট কেন্দ্রিকতা নয়, নতুন কিছু শেখার তাগিদে সেই প্লাটফর্মের সাথে জড়িত দক্ষতা উন্নয়নে কো-কারিকুলার অ্যাকটিভিটিসে যোগ দেয়া জরুরি। অসাধারণ কিছু জীবনমুখী উদাহরণ দিয়ে বিজনেস ভাবনার যথার্থতা ও কার্যকারিতা তুলে ধরেন। নিটারকে সবার কাছে প্রেজেন্ট করা, নিজ ক্যাম্পাসকে প্রোমোট করার সবথেকে বড় মাধ্যম হলো কো-কারিকুলার অ্যাকটিভিটিস । ফ্রেশার হিসেবে জব ফিল্ডে এইসকল কাজ বাড়তি সুবিধা দিয়ে থাকে। কারন কো-কারিকুলার অ্যাকটিভিটিসে অংশগ্রহনের দ্বারা করপোরেট জগতের নানান গুনাবলি রপ্ত হয় যেমনঃ-নেটওয়ার্কিং, কমিউনিকেশন, ম্যানেজমেন্ট, লিডারশীপ ইত্যাদি। উচ্চশিক্ষায় কো-কারিকুলার অ্যাকটিভিটিসের প্রভাব কেমন ? – এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, উচ্চশিক্ষায় বিশ্বের বড় বড় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে যেমনঃ এমআইটি, হাভার্ড, অক্সফোর্ড ইত্যাদি শুধু শিক্ষা যোগ্যতা নয় এর পাশাপাশি তার বাইরে সে কি পারে সে জিনিসটি দেখা হয়। তাই এর প্রয়োজনীয়তা অনেক । আর হাল্ট প্রাইজের মতো আন্তর্জাতিক পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন কিংবা সেটি আয়োজনে থাকা নিঃসন্দেহে তোমাদের জন্যে একটি বিশাল প্রাপ্তি। টাইম ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে তিনি বলেন, আগে নিজেকে ম্যানেজ করা, নিজের ব্যক্তিগত ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিয়ে আগ্রহ বাড়ানো তবেই সময়কে সর্বোচ্চ কাজে লাগাতে পারবে।
প্রেজেন্টেশন নিয়ে দূর্দান্ত কিছু পরামর্শ দেন যে, প্রজেন্টেশনের প্রথম অংশটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ, বিচারকদের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য সমস্যাটিকে ফোকাসে রেখে শুরু করা।
মাঝের অংশে, তথ্য-উপাত্তগুলো ভিজুয়াল করা গ্রাফ বা চার্টের মাধ্যমে এবং প্রত্যেক স্লাইডে একটি মেসেজ রাখা।
এবং শেষ অংশে সমস্যাটি আরেকবার ভাবানো এবং সেই সাথে তার সমাধানও তুলে ধরা । প্রেজেন্টেশন টপিকের মূল মেসেজটি উপস্থাপন ও শেষাংশের বক্তব্যটুকু ইউনিক হতে হবে।
তিনি বিজনেস আইডিয়াকে সামনে রেখে অসাধারণ একটি উক্তি তুলে ধরেন,
Follow your passion
Chose your occupation
অরগানাইজারদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, হাল্ট প্রাইজের মতো কো-কারিকুলার অ্যাকটিভিটিস যেভাবে ভূমিকা রাখে
POLC
P= Planing
O=Organising
L=Leading
C=Controlling
এসব দক্ষতা বৃদ্ধি পায় ।
অর্গানাইজিং কমিটির পক্ষে, মোঃ সালাউদ্দিন বলেন, নিটারে সকলের অংশগ্রহণ ও সহযোগিতায় হাল্ট প্রাইজের সফল একটি অন ক্যাম্পাস রাউন্ড আয়োজনের লক্ষ্যে অরগানাইজিং কমিটি ও এর সাথে জড়িত সকলে তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে ইনশাআল্লাহ।

এরই মধ্য দিয়ে শেষ হয় উক্ত লাইভ সেশন।

হাল্ট প্রাইজ নিটার অন ক্যাম্পাস রাউন্ডের রেজিষ্ট্রেশন চলছে । প্রতিযোগিদের দ্রুত হাল্ট প্রাইজ নিটার এর অফিসিয়াল ওবেবসাইট কিংবা পেজে প্রকাশিত লিংকে গিয়ে রেজিষ্ট্রেশন শেষ করে তাদের আইডিয়া নিয়ে কাজ করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে- অর্গানাইজিং কমিটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Post

Most Popular

Related Post

Related from author