Select Page

ক্যাম্পাস রিভিউ : বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, কালিহাতি, টাঙ্গাইল

ক্যাম্পাস রিভিউ : বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ,  কালিহাতি,  টাঙ্গাইল

ক্যাম্পাস প্রতিনিধিঃ কাজী মোত্তাকিন হোসাইন

ক্যাম্পাস লোকেশনঃ টেক্সটাইল শিক্ষার জন্য যে কয়টি সরকারি বিদ্যাপিঠ রয়েছে তার মধ্যে বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার কলেজ অন্যতম । টাঙ্গাইল শহর থেকে 20 কিলোমিটার দুরে এর অবস্থান । টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে কালিহাতি উপজেলায় সাড়ে এগারো একর জমির উপর মনোরম, নিরিবিলি পরিবেশে এটি অবস্থিত ।

ইতিহাসঃ 2007 সালে অস্থায়ী ক্যাম্পাস হিসাবে ” টাঙ্গাইল টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট” এ এর যাত্রা শুরু হয় ।তখন এর পূর্ব নাম ছিল “বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব টেক্সটাইল টেকনোলজি (বিআইটিটি)। পরবর্তীতে 2010 সালে (বিআইটিটি) নাম পরিবর্তন করে ” বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ (বিটেক) ” করা হয় । 2011 সালে তৎকালীন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী স্থায়ী ক্যাম্পাস হিসাবে কালিহাতিতে (বিটেক) এর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন । 2013 সালের মধ্যে ক্যাম্পাসের সিংহভাগ কাজ শেষ হয় । তবে প্রশাসনিক জটিলতার কারণে একাডেমিক কার্যক্রম শুরু করা সম্ভব হয় নি । পরবর্তীতে ছাত্রদের দাবি ও আন্দলনের কারণে ও তৎকালীন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর হস্তক্ষেপে উদ্বোধন ছাড়াই 2014 সালের 15 ই ফেব্রুয়ারি নতুন ক্যাম্পাসের একাডেমিক কার্যক্রম শুরু করা হয়। 2018 সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্যাম্পাসের শুভ উদ্বোধন করেন । একাডেমিক কার্যক্রমঃ বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের কার্যক্রমপ্রাথমিক পর্যায়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি অনুষদ এবং প্রশাসনিক কার্যক্রম বস্ত্র ও পাট মন্ত্রনালয় দ্বারা পরিচালিত হয় । বর্তমানে ক্যাম্পাসের কার্যক্রম ” বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় (বুটেক্স)” দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে ।

ভর্তি প্রক্রিয়াঃ পরীক্ষা পদ্ধতি MCQ মোট নম্বর =200

ননডিপার্টমেন্ট =80 ডিপার্টমেন্ট =120 মোট 100 টি প্রশ্ন থাকবে প্রত্যেকটি প্রশ্নের মান 2 করে । এছাড়া আরও 100 নম্বর এস এস সি ও ডিপ্লোমা রেজাল্টের উপর ভিত্তি করে দেয়া হয় । সর্বমোট 300 নম্বরের ভিত্তি করে শিক্ষার্থী নির্বাচন করা হয় ।

শিক্ষার্থীদের আসন সংখ্যাঃ শুরুতে আসন সংখ্যা 50 টি থাকলেও পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে আসন সংখ্যা বাড়িয়ে 125 জন করা হয় । প্রথম ব্যাচঃ2007-2008 সেশন = 50 জন দ্বিতীয় ব্যাচঃ 2008-209 সেশন = 50 জন তৃতীয় ব্যাচঃ 2009-2010 সেশন =50 জন চতুর্থ ব্যাচঃ 2010-2011 সেশন =50 জন পঞ্চম ব্যাচঃ 2011-2012 সেশন =80 জন ষষ্ঠ ব্যাচঃ 2012-2013 সেশন = 80 জন সপ্তম ব্যাচঃ 2013-3014 সেশন =80 জন অষ্টম ব্যাচঃ 2014-2015 সেশন =100 জন নবম ব্যাচঃ 2015-2016 সেশন =100 জন দশম ব্যাচঃ 2016-2017 সেশন =125 জন একাদশ ব্যাচঃ 2017-2018 সেশন =125 জন

প্রাতিষ্ঠানিক অবকাঠামৌঃ একাডেমিক ভবন ও প্রশাসনিক ভবন ছাড়াও আরও অনেক গুলো অবকাঠামো রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানে । শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে একটি আধুনিক লাইব্রেরি ও অডিটোরিয়াম এবং প্রার্থনার জন্য রয়েছে কটন স্পিনিং শেড সংলগ্ন মসজিদ । বিদ্যুৎ ঘাটতি মেটানোর জন্য একটি সাবষ্টেশন ও রয়েছে ।স্টাফ ডরমিটরি , টিচার্স ডরমিটরি , দুইটি অফিসার্স কোয়ার্টার এবং প্রিন্সিপাল কোয়ার্টার রয়েছে ।এই প্রতিষ্ঠানটি সকল ধরনের ল্যাবরেটরি দ্বারা পরিপূর্ণ । এছাড়াও রয়েছে কটন স্পিনিং শেড, জুট স্পিনিং শেড, ফেব্রিক ম্যানুফ্যাকচারিং শেড ইত্যাদি ।

আবাসনঃ বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠানে ছেলেদের থাকার জন্য দুইটি হল এবং মেয়েদের থাকার জন্য একটি আধুনিক হল এর ব্যবস্থা রয়েছে । স্টাফ ডরমিটরি , টিচার্স ডরমিটরি , দুইটি অফিসার্স কোয়ার্টার এবং প্রিন্সিপাল কোয়ার্টার রয়েছে । এই প্রতিষ্ঠানটি সকল ধরনের ল্যাবরেটরি দ্বারা পরিপূর্ণ । এছাড়াও রয়েছে কটন স্পিনিং শেড, জুট স্পিনিং শেড, ফেব্রিক ম্যানুফ্যাকচারিং শেড ইত্যাদি ।

ডিপার্টমেন্টঃ বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে চারটি মেজর ডিপার্টমেন্ট রয়েছে । যথাঃ 1) ইয়ার্ণ ম্যানুফ্যাকচারিং ইঞ্জিনিয়ারিং 2) ফেব্রিক ম্যানুফ্যাকচারিং ইঞ্জিনিয়ারিং 3) ওয়েট প্রসেস ইঞ্জিনিয়ারিং 4) অ্যাপারেল ইঞ্জিনিয়ারিং ক্যাম্পাস সৌন্দর্যঃ দৃষ্টি নন্দন স্থাপনা বিজয় একাত্তর , চরকা এবং মুক্তমঞ্চ ছয় দফা প্রতিষ্ঠানের সৌন্দর্য বহু গুনে বাড়িয়ে দিয়েছে । শোভা বাড়াতে নান্দনিক বিটেক ব্রিজের জুড়ি নেই যা বিটেক এর দুই প্রান্তকে যুক্ত করেছে।

About The Author

Leave a reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




Grow up your business

TextileEnginerrs










March 2020
MTWTFSS
« Feb  
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031