Tuesday, March 5, 2024
More
    HomeIndustrial Calculationগার্মেন্টস স্টক বিজনেসঃ বেকারদের কর্মসংস্থান

    গার্মেন্টস স্টক বিজনেসঃ বেকারদের কর্মসংস্থান

    একটি বাস্তব গল্পাংশ দিয়ে শুরু করা যাক…..

    অভাবগ্রস্ত পরিবার থেকে উঠে এসে বিশ্ববিদ্যালয়ের গন্ডি পর্যন্ত আসা একজন ছেলে ছিলো আরমান। পড়াশোনার পাশাপাশি ছাত্রাবস্থায় সংসারের দায়িত্বও কাধে নিতে হবে, তাইতো ছোট পরিসরে লাভজনক একটা ব্যবসা দাড় করানোর চিন্তা করছিলো। বন্ধুবান্ধবের কাছে খোঁজাখুঁজি করে এবং নিজে ঘাটাঘাটি করে পেয়েও গিয়েছিলো স্টকলট ব্যবসায়ের ধারনা..

    ▪️এখন আসা যাক স্টকলট কি?

    ▪️স্টক লটঃ
    বায়ারদের অর্ডারকৃত পোষাক গার্মেন্টস কোম্পানী তৈরী করে নির্দিষ্ট গননায় পোষাকগুলি প্যাকেট করা হয় ,এইরকম একেকটি প্যাকেটকে বলে লট। আর এই প্যাকেটগুলি এক্সপোর্টের জন্য গুদামে সংরক্ষন করাকে স্টক লট বলে।

    তৈরিকৃত পোশাক ক্রেতাদের কাছে ঠিকমত পৌঁছে দিতে না পারার ফলে গার্মেন্টসে সেগুলো স্টক হয়। স্টক হবার কারনে গার্মেন্টসের কিছুটা ক্ষতি হলেও সেটি লট ব্যবসায়ীদের জন্য লাভজনক হিসেবে কাজ করে।

    ▪যে সকল কারনে পোশাক স্টক হয়:

    বিভিন্ন কারণে গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি গুলোর তৈরিকৃত পোশাক স্টক হয়ে যেতে পারে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি কারণ হচ্ছে-

    ১) শিপমেন্ট বাতিল
    ২)শিপমেন্ট ডিলে হওয়া
    ৩)কন্টিনিউয়াস রি-চেক
    ৪)এল সি প্রবলেম

    এছাড়াও বায়াররা কমমূল্যে ক্রয়ের আশায় বিভিন্ন অযুহাত দেখিয়ে শিপমেন্ট বাতিল করে। যার ফলে এসকল তৈরিকৃত পোশাক স্টক হয়ে যায়।

    ▪লট ব্যবসায় পদ্ধতি (প্রাপ্তিস্থান,পুঁজি, বিক্রয়,সতর্কতা, লাভ) সম্পর্কিত বিস্তারিতঃ

    বিস্তারিত জেনেশুনে এই ব্যবসার দিকে ঝুকলে বেশ লাভবান হওয়া যায় এবং ঝুঁকি এড়ানো সহয হয়। সাধারণত বিশহাজার থেকে দুইলক্ষ সমপরিমান অর্থ পুঁজি করে এই ব্যবসায়ের মঞ্চে আসা যায়। এক্ষেত্রে ব্যবসায়ের জন্য কোথায় ভাল মানের মাল সহযেই পাওয়া যাবে সে সম্পর্কে ভাল ধারনা প্রয়োজন।প্রথমত অনেক বায়িং হাউস এবং গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি যারা ছোট ছোট লটে গার্মেন্টস আইটেম সরবরাহ করে থাকে। বিভিন্ন লোকাল ব্যবসায়ী ও দালাল রয়েছে যারা কম মূল্যে মালামাল সরবরাহ করে।
    এছাড়াও স্টকলটের নানান পাইকারী বাজারও গড়ে উঠেছে যেখান থেকে সহযেই চাহিদা পূরন করা যায়।

    সাধারণত ব্যবসায় পরিচালনার লক্ষ্যে দোকান,অফিস, শো-রুম বা বাসস্থানের রুমকে অফিস হিসেবে ব্যবহার করতে হয়। কারন ক্রয়বিক্রয়ের ব্যাপারে নির্দিষ্ট ঠিকানা প্রয়োজন যার মাধ্যমে ক্রেতাদের আগ্রহ জন্মাবে।অফিসরুম কে নিজেরমত করে সাজিয়ে নিয়ে সেখান থেকেই ব্যবসায়কার্য পরিচালনা করা সম্ভব হবে।

    বায়িং হাউস বা গার্মেন্টস থেকে ভাল কোয়ালিটির চাহিদাপূর্ন কাপড় বাজারমূল্যের চেয়ে কম মূল্যে ক্র‍য় করে মার্কেট,শো-রুম বা দোকানে বিক্রি করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে সবথেকে লাভজনক হয় যদি নিজের বন্ধুবান্ধব বা শুভাকাঙ্ক্ষীদের দ্বারা ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করা যায়। আর লোকাল মার্কেটে নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে সামান্য বেশি মূল্যে বিক্রয় করে লাভবান হওয়া যায়।

    এধরনের ব্যবসায় বেশ কিছু সতর্কতা অবলম্বন করতে হয় যাতে করে ক্রেতা হাতছাড়া না হয়ে যায়। এর মাঝে না বুঝে লট কেনা থেকে বিরত থাকা,বাজারদর হিসাব না রাখা, নির্ধারিত সময়ে পণ্য ডেলিভারি না দেয়া,অর্ডার নেয়ার আগে পণ্যের মজুদ নিশ্চিত করা উল্লেখযোগ্য। এসব বিষয়ে খেয়াল না রাখলে ব্যবসায়ে মন্দা আসার সম্ভাবনা খুব বেশি।

    ▪️স্টকলট ব্যবসায় লাভের কোনো লিমিট নেই। প্রতিটি পণ্যে সামান্য লাভ নিয়ে যত বেশি ক্রেতাদের কাছে পণ্য বিক্রি করা যাবে ততই লাভের পরিমান বাড়বে। লাভের পেছনের আরও কিছু কারন হচ্ছে পণ্যের সহজলভ্যতা, নানাবিধ ডিজাইন, খুচরা বিক্রির ঝামেলা নেই এবং কম দামে অনেক পণ্য কেনা যায়। বিপরীতে কিছু অসুবিধায়ও পড়তে হয় যেমন অনেকক্ষেত্রে মানসম্মত পণ্য পাওয়া যায়না, অতিরিক্ত সেলাই খরচ,একসাথে পণ্যের অতিরিক্ত মজুদ এবং এসকল পণ্যের ব্র‍্যান্ডিং সম্ভব হয়না।

    তারপরেও দক্ষতার সাথে এই ব্যবসায়ে বেশ লাভজনক হওয়া যায়।

    ▪️বর্তমানে ব্যান্ডেড শর্টলট এর ক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি নামীদামী ব্র‍্যান্ড যেমনঃ Gucci,NIKE,Hugo Boss,ZARA,Converse, H&M,PUMA ইত্যাদি বেশ ভূমিকা রাখছে।।

    আমাদের দেশ পোশাক শিল্প রপ্তানি নির্ভর একটি দেশ। দেশে শ্রমিক খরচ কম হওয়ায় বিদেশি বায়াররা আমাদের দেশ থেকে প্রতি বছর বিপুল পরিমাণ পোশাক আমদানি করে। কিন্তু বায়াররা কোনো কারণে অর্ডার বাতিল করলে সেটা স্টক হিসেবে জমা হয়।এই ধরণের ব্যাবসা কম পুঁজিসম্পন্ন ও বেশ লাভজনক হওয়ায় দেশের বহু মানুষ দিন দিন এর সাথে সম্পৃক্ত হচ্ছে। ফলে অনেক বেকার যুবক নিজেদের কর্মসংস্থানের সুযোগ করে নিচ্ছে যা আমাদের অর্থনৈতিক শিল্পে ব্যাপক অবদান রাখছে।

    ▪️লট ব্যবসায়ের গুরুত্ব অনুধাবন করে সকল নির্দেশনা অনুসরন করে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া আরমানও সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয় সে লাখখানেক টাকা পুঁজি করে লট ব্যবসায় শুরু করবে। যেই ভাবা সেই কাজ! এভাবেই আস্তে আস্তে সকল নিয়মাবলী অনুসরণ করে এবং অত্যান্ত পরিশ্রমের সহিত সফলভাবে ব্যবসায় পরিচালনার পর বছর গড়ালে সে একজন সফল উদ্যোক্তা হিসেবে আত্নপ্রকাশ করে এবং শত শত বেকারদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়।

    ▪️স্টকলট সম্পর্কিত বেসিক ধারণা নিয়ে আজকের আর্টিকেলটি। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে অভিজ্ঞদের পরামর্শ নেয়া বাঞ্ছনীয়।
    টেক্সটাইল পড়ুয়া বিভিন্ন শিক্ষার্থী রয়েছে যাদের গার্মেন্টস রোগ সম্পর্কিত বিস্তারিত ধারণা রয়েছে। তারাও চাইলে ছাত্রাবস্থাতেই ছোট পরিসরে গার্মেন্টস স্টক লট এর ব্যবসা পরিচালনা করতে পারে যেটা একটা সময় গিয়ে ব্যাপকভাবে সাড়া ফেলতে পারে।

    তথ্যসূত্রঃ টেক্সটাইল বাংলা, উদ্যোক্তার খোঁজে, বাংলা নিউজ ২৪

    Writer information:
    Md Rashid
    Research Assistant
    Textile Engineers Society
    Dr. M A Wazed Miah Textile Engineering College

    RELATED ARTICLES

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    - Advertisment -

    Most Popular

    Recent Comments