Home Textile Manufacturing Dyeing পরিবেশ বান্ধব ডাইং সিস্টেম (ড্রাই ডাইং)

পরিবেশ বান্ধব ডাইং সিস্টেম (ড্রাই ডাইং)

আমাদের এই পৃথিবীতে পানির লেভেল দিন-দিন কমে যাচ্ছে, সেই সাথে কমে যাচ্ছে মানুষের সুপেয় পানির ব্যবস্থ্যা। বিজ্ঞানীরা ধারনা করেন, যে আমাদের পৃথিবির পানির লেভেল অতিদ্রুতই নিচে নেমে যাবে এবং এর কারনে দেখা দিবে পরিষ্কার পানির অভাব। তবে এই অবস্থ্যা থেকে রক্ষা পেতে অনেক পদ্ধতি অবলম্বন করা হচ্ছে।

বিশ্বব্যাপী,পরীবর্তন আনা হচ্ছে পৃথিবীর বিভিন্ন সেক্টরের পানির ব্যবহারে। কিন্তু একটি সেক্টরে খুব সামান্যই উন্নতি হচ্ছে। আর সেটা হলো আমাদের টেস্কটাইল সেক্টরে।বলা হয়ে থাকে মাত্র ১ কিলোগ্রাম টেক্সটাইল ম্যাটেরিয়াল প্রসেস করতে প্রায় ১০০-১৫০ লিটার পানি খরচ হয়। পানি প্রায় টেক্সটাইলের প্রতিটি ধাপে প্রয়োজন। এটি প্রি-ট্রিটমেন্ট থেকে ফিনিসিং যেমনঃ ওয়াসিং,ব্লিচিং, ডাইং, রিনসিং এবং স্কাউরিং এর প্রতি ধাপে গুরত্বপূর্ন ইলিমেন্ট হিসেবে ব্যবহার হয়ে আসছে।

আরো স্পেস্ফিকভাবে বলতে গেলে আমাদের ডাইং সেক্টরের কথা বলা যায়। এই সেক্টরের অন্যতম মূল উপাদান হলো পানি। আমরা প্রতিনিয়ত হাজার হাজার লিটার পানি নষ্ট করি ডাইং সেক্টরে। সম্প্রতি এই সেক্টরে একটি নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে আর তা হলো ড্রাই ডাইং।

নেদারল্যান্ডসের এক কোম্পানী বিশ্বকে ড্রাই ডাইং এর সাথে পরিচিত করিয়ে দিয়েছে। বর্তমানে অনেক দেশেই এর ডেভলপমেন্ট নিয়ে কাজ চলছে। কিছু কিছু দেশ তাদের কনভেনসনাল ডাইং সেক্টর, ড্রাই ডাইং দিইয়ে রিপ্লেস করছে তার মধ্যে অন্যতম হলো তাইওয়ান ও থাইল্যান্ড।

ড্রাই ডাইং এমন একটা প্রসেস যেখান এইম হচ্ছে “Zero Water Usage” অর্থাৎ এই প্রসেসে ডাই করতে কোন পানির প্রয়োজন হয় না। এখন প্রশ্ন জাগতে পারে যদি পানি না ব্যবহার করা হয় তবে এর বিকল্প হিসেবে কী ব্যবহার করা হয়? উত্তর হচ্ছে, ড্রাই ডাইং এ পানির বদলে “Super Critical CO2” ব্যবহার করা হয়। এটা তরল ও গ্যাসের মাঝামাঝি একটা অবস্থ্যা যা ফেব্রিক ডাই করার জন্য ব্যবহার করা হয়।

তাহলে ঠিক কীভাবে এই প্রসেসে ফেব্রিক ডাই করা হয়? চলুন এই সম্পর্কে একটু ধারনা দেয়ার চেষ্টা করি আপনাদের।

No description available.

প্রথমে ক্লিন ফেব্রিক একটি আবদ্ধ ভেসেলে লোড করা হয় এবং চেম্বারে প্লেস করা হয়। তারপর আবদ্ধ অবস্থ্যা এমন তাপমাত্রা ও বায়ু চাপ বজায় রাখা হয় যেখানে কার্বন ডাই অক্সাইড ( co2) একটি সুপার ক্রিটিকাল অবস্থ্যানে যায়। ডাইং ইলিমেন্ট বা ডাই খুব সহজে co2 এর সাথে মিশ্রিত হয়ে এবং ফেব্রিকের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত করানো হয়। এতে ফেব্রিক আরো ইফেক্টিভলি ডাই হয় এবং ভালো কোয়ালিটির আউটপুট পাওয়া যায়।

ডাইং এর এই প্রসেস শেষে তা ভেসেল থেকে আনলোড করা হয় এবং ব্যবহারের জন্য সম্পূর্নভাবে প্রস্তুত এই ফেব্রিকগুলো পরবর্তী গন্তব্যে নিয়ে যাওয়া হয়। আর ব্যবহৃত CO2 এর প্রায় ৯৫% সেপারেটরের মাধ্যমে আলাদা করে পুনরায় ব্যবহার করা যায়। ফলে বুঝাই যাচ্ছে এটা কতটা ইফিসিয়েন্ট। কনভেনসনাল পদ্ধতিতে আমাদের ডাইং এর পর ড্রাই করতে হতো কিন্তু এই পদ্ধতিতে একসাথেই সব প্রসেস সম্পূর্ন হয়ে থাকে। পরীক্ষা করে দেখা গেছে যে, এই পদ্ধতিতে যেই রেসাল্ট পাওয়া যায় তা কনভেনসনাল পদ্ধতির সমান রেসাল্ট দেয় আমাদের।

এটি অপেক্ষাকৃত দ্রুত প্রসেস হওয়ায় ভালো পরিমানে প্রডাকশন পাওয়া যায়। (প্রায় ৪০০০ কে.জি. / দিন) কেনো Co2 ব্যবহার করা হয়? Co2 ব্যবহার করা হয় কারন , আমরা ইতিমধ্যে এপারেল এর ড্রাই ক্লিনিং এর জন্য এই পদ্ধতি ব্যবহার করেছি এবং দেখেছি “Super Critical Co2” খুব ভালো রেজাল্ট দেয়। এছাড়াও আরো অনেক কারন রয়েছে যার কারনে Co2 ড্রাই ডাইং এ ফ্লুইড হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

এর সবচেয়ে বড় কয়েকটি কারনের মধ্যে কিছু হলোঃ-

১. এটি সহজে পরিবেশে পাওয়া যায় অর্থাৎ সহজলভ্য।
২. সহজে বায়ো-ডিগ্রেড করা যায়।
৩. কোন উদ্বায়ী পার্টিকেল রিলিজ করে না।
৪. অদাহ্য, অবিষাক্ত, ক্ষতিকরহীন।

এই পদ্ধতি ব্যবহার করার ফলেঃ-

১. কম এনার্জি ব্যবহার হয়।
২. কম সময়ে ডাইং সম্পূর্ন হয়।
৩. পানি অপচয়রোধ হয়।
৪. অপেক্ষাকৃত কম ডাইং স্টাফ এর প্রয়োজন হয়।

বর্তমানে এই সুপার ক্রিটিকাল ডাই সিস্টেম বা ড্রাই ডাইং শুধু সিনথেটিক ও পলিস্টার ফেব্রিক ডাই করার জন্য ব্যবহৃত হয়। আর এইক্ষেত্রে মোডিফাইড ডিসপার্সেড ডাই ব্যবহার করা হয়। অনেক কোম্পানী এবং গবেষকরা এই ড্রাই ডাইং সিস্টেমকে সেলুলজিক ফেব্রিক ডাই করার জন্য ব্যবহার কাজ করছেন। হয়তবা অদূর ভবিষ্যতে আমরা এই ড্রাই ডাইং সেলুলজিক ফেব্রিকে ব্যবহারের উপযোগী হয়ে উঠবে।

সম্প্রতি সুইজারল্যান্ডের এক ডাইং কোম্পানী ঘোষনা দিয়েছে, তারা নতুন এক ধরনের পরিবেশ বান্ধব ডাই তৈরী করতে সক্ষম হয়েছে যা সাধারন কনভেনসনাল ডাই সিস্টেমের তূলনায় ৯২% কম পানি, ৩০% কম শক্তি এবং ৬৩% পর্যন্ত তূলা অপচয় রোধ করে।

আমাদের সবার উচিত এই বিষয়ে আর গভীর গবেষনা চালিয়ে যাওয়া এবং পরিবেশ রক্ষার্থে উদ্দ্যোমী হয়ে কাজ করা। “World Bank” এক বিবৃতি অনুযায়ী টেক্সটাইল ডাইং এবং ট্রিটমেন্ট একাই গোটা ইন্ডাস্ট্রিয়াল পানি দূষনের ১৭-২০% কভার করে। বাস্তবে এই সংখ্যাটা অনেক বিশাল যা আমদের পরিকল্পনারও বাইরে। তাই এই পরিস্থিতি দূরীকরনে ও আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্ম কে একটি সুন্দর পৃথীবি উপহার দিতে ড্রাই ডাইং গুরত্বপূর্ন রোল প্লে করতে পারে। আশা করা যায় অদূর ভবিষ্যতে আমরা ড্রাই ডাইং মেথড ব্যবহার করে লক্ষ – লক্ষ টন পানির অপচয়রোধ করতে পারবো এবং পৃথীবির পরিবেশ রক্ষায় এক গর্বিত সেক্টর হবো।

লেখক:

মো. ইমতিয়াজ
টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ
সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটি
ই- মেইলঃ [email protected]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Post

Most Popular

Related Post

Related from author

error: Content is protected !! Don\\\\\\\\\\\\\\\'t Try to Copy Paste.