Home EPZ পাকিস্তানে নির্মাণাধীন কিছু E.P.Z. এর কথা

পাকিস্তানে নির্মাণাধীন কিছু E.P.Z. এর কথা

আমরা সবাই কিন্তু ছোটবেলায় পাকিস্তানের খাইবার গিরিপথের নাম শুনেছি। তো পাকিস্তানের এই খাইবার প্রদেশে বিশাল বড় বড় অনেকগুলো S.E.Z. বা স্পেশাল ইকোনমিক জোন (বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল) নির্মাণ হতে যাচ্ছে। এই S.E.Z. বা স্পেশাল ইকোনমিক জোন গুলো নিয়েই আজকে আমাদের এই লিখা।

খাইবার প্রদেশ পাকিস্তানের একটি অন্যতম বৃহত্তম এলাকা গুলোর মধ্যে অন্যতম। এই প্রদেশটি পাকিস্তানের উওর-পশ্চিম সীমান্তে অবস্থিত। যুব সমাজের উন্নতি সাধনের জন্য শিল্প, ব্যবসা-বাণিজ্য ও সাধারণ কর্মসংস্থানের উন্নয়নে খাইবার প্রদেশের প্রাদেশিক সরকার ১০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল (S.E.Z. অথবা Special Economic Zone) স্থাপনের জন্য পরিকল্পনা বা চিন্তা করেছে।

KP Industrial Policy 2020-30 এর শিল্প নীতি অনুসারে, খাইবার প্রদেশের প্রাদেশিক সরকার দশটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল (এসইজেড) স্থাপন বা নির্মাণ করবে। যার মধ্যে ১০০০ একর জমির উপর Hattar S.E.Z. Extension, ১৫০০ একর জমির উপর Darband S.E.Z., ৩৫০ একর জমির উপর Mohmand S.E.Z, ৭৭ একর জমির উপর Nowshera Extension S.E.Z., Swat E.Z., Buner E.Z., Chitral E.Z. এর মত বড় বড় অর্থনৈতিক অঞ্চল বা স্পেশাল ইকোনমিক জোন নির্মাণ করবে।

এই পরিকল্পনা ছাড়াও, খাইবার প্রদেশটির প্রাদেশিক সরকার আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে Rashakai S.E.Z. এর মতো পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (Public Private Partnership, P.P.P.) এর অধীনে কমপক্ষে দুটি S.E.Z. নির্মিত করবে এবং অতি দ্রুত এই শিল্পায়নকে সহায়তা করতে প্রশাসনিক ব্যবস্থাও গ্রহণ করবে।

প্রস্তাবিত KP Industrial Policy 2020-30 এর নীতিমালার অধীনে খাইবার প্রদেশের প্রাদেশিক সরকার, এই অঞ্চলটি তে শিল্পায়নের সুবিধার জন্য স্থানীয় যুবকদের কে বিশেষ ধরনের ট্রেনিং প্রদান করবে। যা শিল্পায়নের জন্য অনেক সুবিধা বয়ে আনবে। তাছাড়া এই নীতিমালাটিতে আন্তর্জাতিক মানের লজিস্টিক পার্কও স্থাপনের প্রস্তাব করা হয়েছে। তাছাড়া বাণিজ্যিক ব্যাংক ও শিল্প ব্যাংকগুলিকে (I.F.I. Initial Financial Investment) প্রারম্ভিক মূলধন সরবরাহের জন্য সহজ ব্যবস্থা বিধানের প্রস্তাব দিয়েছে।

বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের পাশাপাশি আরও নানা ধরনের শিল্পের প্রতি তাদের উৎসাহ দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। যেমন: প্রতিযোগিতামূলক ক্ষুদ্র এবং মাঝারি আকারের ব্যাবসা (S.M.E. Small & Medium-sized Enterprises), কুটিরশিল্পের উন্নয়ন ও শিল্পের চাহিদা অনুযায়ী দক্ষ কর্মীদের পশুপাখি পালনের জন্য উৎসাহ দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জনের জন্য নির্মাণ শিল্পের পাশাপাশি, প্রাদেশিক সরকার ওষুধ, ইলেকট্রনিক্স, গৃহ যন্ত্রপাতি, পোশাক, ট্রান্সশিপমেন্ট, আইটি ভিত্তিক বিভিন্ন কাজের ক্ষেত্রও তৈরি করার পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। যা পাকিস্তানের টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রির জন্য এক বিশাল বড় আশীর্বাদ হয়ে দাঁড়াবে।

Writer information:

Name: Md Khairul Islam
Institute: Primeasia University
Batch: 201
Campus Core Team Member (T.E.S.)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Post

Most Popular

Related Post

Related from author