পাঞ্জাবী: সৌখিন পোষাকের আরেক নাম

0
4882

🔴 মুসলমানদের ইদ কিংবা হিন্দুদের পুজো অথবা যেকোনো ধর্মীয় বা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে পাঞ্জাবী পুরুষদের জন্য একটি ফ্যাশনের অংশ হয়ে দাড়িয়েছে। পাঞ্জাবি ছাড়া ছেলেদের উৎসব যেন জমেই উঠে না। কারণ পাঞ্জাবিতে রয়েছে যুগ যুগ ধরে চর্চা হয়ে আসা ঐতিহ্য, ইতিহাস এবং সংস্কৃতির ছোয়া। যেকোন অনুষ্ঠানে পুরুষদের পছন্দের পোশাকের তালিকায় প্রথম স্থান দখল করে নিয়েছে পাঞ্জাবি। পাঞ্জাবিতে পুরুষের রুচিবোধ প্রকাশ পায়।।

🔴 ইন্দো ইউরোপীয় ভাষা পরিবারের ইন্দো আর্য শাখার একটি ভাষা হল “পাঞ্জাবি”। পাঞ্জাবি ভাষায় সাধারণ পাঞ্জাব সম্প্রদায়ের মানুষ কথা বলে থাকে। এটি শিখদের ধর্মীয় ভাষা আর পাঞ্জাবরা শিখ ধর্মালম্বী। তাই এই ভাষাকে তাদের ধর্মীয় ভাষাও বলা চলে। ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, যুক্তরাজ্য, মার্কিন যুক্তরাজ্য, কানাডা, মিয়ানমার, দুবাই, ফিলিপাইনে ইত্যাদি ভাষার প্রচলন রয়েছে। পৃথিবীতে প্রায় ১৭ কোটি মানুষের ভাষা পাঞ্জাবি ভাষা।

🔴 পাঞ্জাব অঞ্চলের অধিবাসী অর্থাৎ পাঞ্জাবীদের পরিধেয় পোশাক বর্তমানে পাঞ্জাবি নামে পরিচিত। প্রাচীনকালে তারা হাটু পর্যন্ত কাপড় পড়ত। স্কার্ফের সাথে আলগা কাপড় পরত আবার কোমরে ধুতি পড়ত। পূর্বের সাথে বর্তমান পাঞ্জাবীর সাজসজ্জার একটু ভিন্নতা রয়েছে। কারণ পূর্বে তারা সেলাই করা কাপড়কে অপবিত্র মনে করতো। তাই তারা সেলাই ছাড়াই সুতি কাপড় গায়ে জরিয়ে রাখত। তবে কালের বিবর্তনে শুধু কাপড়ের সাথে কাপড় জুড়ে সেলাইটা যুক্ত হয়েছে। সেই সাথে যুক্ত হয়েছে নানানরকম ফ্যাশানেবল ডিজাইন।

🔴 বিংশ শতাব্দীর দিকে পাঞ্জাব অঞ্চল সুতি কাপড় তৈরীতে বেশ সুনাম অর্জন করেছিল যা এখনো রয়েছে। তারা লুঙ্গি, চাদর, পর্দা ইত্যাদি কাপড় তৈরী করতেন। লাহোর, সুলতান, অমৃতসর, রোহতাক, গুরুদাসপুর, কারনাল, লুধিয়ানা ইত্যাদি স্থানে পাঞ্জাব অধিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী পোষাক শিল্পকে উন্নতি করেছে। তাদের পূর্ব সংস্কৃতিকে সময়ের ধারাকে থমকে দিয়ে বিশ্বের কাছে সুপরিচিত করে নিয়েছে।

🔴 পছন্দ ও বৈশিষ্ট্যভেদে কয়েকপ্রকার পাঞ্জাবীর প্রচলন রয়েছে:

⭕শেরওয়ানী পাঞ্জাবি;
⭕শর্ট পাঞ্জাবি;
⭕লং পঞ্জাবি;
⭕কাবলি পাঞ্জাবি;
⭕ব্লক বাটিকের পাঞ্জাবি;
⭕কারচুপি পাঞ্জাবি;
⭕জুব্বা পাঞ্জাবি;
⭕বালুচরে নান্দনিক পাঞ্জাবি

🔴 পুরুষেরা পাঞ্জাবি পছন্দের ক্ষেত্রে সাধারণত কালো, সাদা, হলুদ, নীল, লাল, ললচে ক্ষয়েরী ইত্যাদি রং কেই বেশি প্রাধান্য দেয়। পহেলা বৈশাখ, বসন্ত বরণ, ঈদ, পূজা-পার্বণ থেকে শুরু করে ধর্মীয় বা সামাজিক উৎসবে পাঞ্জাবি না পরলে যেন তাদের উৎসব জমেই উঠে না।।

🔴 বর্তমানে পাঞ্জাবি বাঙ্গালীর ঐতিহ্যবাহী পোশাকের স্থান দখল করে নিয়েছে। তাই যে কোন অনুষ্ঠানে পাঞ্জাবি ক্র‍য় করার সময় ক্রেতাদের উদ্দীপনা সর্বোচ্চ পর্যায়ে থাকে। তাই ক্রেতাদের যুগোপযোগী পাঞ্জাবী নিয়ে দুশ্চিন্তা দূর করতে যেসকল ব্র‍্যান্ড কাজ করছে তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি:

💠 জেন্টাল পার্ক পাঞ্জাবি ;
💠 লা-রিভ পাঞ্জাবি;
💠 একস্ট্যাসি পাঞ্জাবি;
💠 লুবনান পাঞ্জাবি ;
💠 লাক্সবা পাঞ্জাবি;
💠 আড়ং পাঞ্জাবি;
💠 রিচ ম্যান;
💠 এপেরা পাঞ্জাবি

🔴 পাঞ্জাবি এমন একটি পোশাক যা

⭕ সব ঋতুতে মানানসই ;
⭕ পড়তে আরামদায়ক ;
⭕ সৌখিনতা ও আধুনিকতার পরিচয় বহন করে ;
⭕ সকল পরিবেশে মানানসই ;
⭕ সকল গড়নের মানুষের জন্যই মানানসই ;

পাঞ্জাবি সাধারণত সুতি কাপড়ের হয় তবে কিছু কিছু পাঞ্জাবি ভিক্স কাপড়েরও হয়ে থাকে।।
জনপ্রিয় ফ্যাশন শো গুলোতে বাহারী পাঞ্জাবী পরিহিত মডেলদের দেখা যায়। এ যেন পোশাকে রুচিশীলতার আরেক নাম।

সোর্স— পাঞ্জাবি উইকিপিডিয়া

লেখক পরিচিতি :

অর্পিতা সাহা
অ্যাপ্যারেল ইঞ্জিনিয়ারিং
দ্বিতীয় ব্যাচ
ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here