Home Life Style & Fashion ফাল্গুনের শাড়ী আর পাঞ্জাবি যেমন হওয়া চাই

ফাল্গুনের শাড়ী আর পাঞ্জাবি যেমন হওয়া চাই

এই তো আর কয়েকটা দিন পরেই আসছে বাঙ্গালীর বসন্ত বরনের উৎসব। ফাগুনের প্রথম দিনটাকে বেশ ঢাক-ঢোল পিটিয়েই উৎসবটা পালন করে বাঙ্গালি জাতি। বসন্তে চারদিকে অসংখ্য ফুলে রঙ্গিন হয়ে উঠে প্রকৃতি। এই সময় আবহাওয়াটা থাকে না শীত, না গরম টাইপ। হালকা একটু শীতের আমেজ সাথে একটু ঠান্ডা বাতাসের পরশ,এমন সময়ে চাই একটি সঠিক পোশাক। যেই পোশাক হবে উৎসব এর সাথে মানানসই এবং সেটা যাতে অনাসায়েই পরিবেশের সাথেও খাপ খাইয়ে যায়।
বসন্ত বরনে পড়ার উপযোগী শাড়ী-পাঞ্জাবি

হাফ সিল্কে হ্যান্ড পেইন্ট শাড়ী-পাঞ্জাবি: বিগত দু-তিন বছর ধরেই হ্যান্ড পেইন্ট এর প্রচলনটা রমারমা।এ দেশের ফ্যাশন ডিজাইনাররা অনেক ধরনের কাপড়ের উপরই ফুটিয়ে তুলেছে রঙ্গিন সব নকশাদার হ্যান্ড পেইন্ট। তবে হাফ সিল্কে হ্যান্ড পেইন্ট সবথেকে বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছে। ফাল্গুলের এই আবহাওয়ায় হাফ সিল্ক একটা মানানসই ফেব্রিক। এটি যেমন খুব ভারীও না তেমনি সফটও অনেক।এই ফেব্রিক এর শাড়ী বা পাঞ্জাবি পরে অনাসয়েই বসন্ত বরনের অনুষ্ঠান উৎযাপন করা যাবে।

স্লাব কটন শাড়ী-পাঞ্জাবি: চিরচেনা কটন সবসময় আমাদের সবার পছন্দের তালিকায় অন্যতম।স্লাব কটন হচ্ছে কটন থেকে কিছুটা ভিন্ন। মূলত স্লাব কটনের ইয়ার্ন তৈরীতে রয়েছে ভিন্নতা। স্লাব কটনের ইয়ার্নে রয়েছে থিক-থিন অংশ যা ফেব্রিকে আনে ভিন্ন একটা টেক্সচার।এছাড়া এই কাপড়ে আলো, বাতাস চলাচল নরমাল কটনের থেকে বেশি। তাই গরমকালের জন্য এটি একটা পারফেক্ট ফেব্রিক। কটনের মতই এটাতে যেকোনো রং ও ডিজাইন করে বসন্তের জন্য সুয়েটেবল শাড়ী পাঞ্জাবি ডিজাইন করা হয়।জনপ্রিয়তার দিক থেকে এটিও কোনো অংশে কম নয়।

কটন কাপড়ে স্ক্রিন প্রিন্ট: কটনের উপর স্ক্রিন প্রিন্টও বেশ জনপ্রিয় এই আবহাওয়ায় পড়ার জন্য।কটন কাপড় হয় খুবই আরামদায়ক। কটনের উপর স্ক্রিন প্রিন্ট কাপড়কে একটা এক্সক্লুসিভ লুক এনে দেয়। সাধারণত দেখা যায় কটন কাপড় এক কালার বা নরমাল প্রিন্টের হয়ে থাকে,যেটা কিনা উৎসবের জন্য মানানসই হয়না। কিন্তু স্ক্রিন প্রিন্ট সেই লুকটা এনে দেয়।তাই ফাল্গুলের দিনের জন্য ছেলে মেয়ে সবার কাছেই উপযোগী একটা ফ্রেব্রিক হচ্ছে স্ক্রিন প্রিন্ট এর শাড়ী-পাঞ্জাবী। শিশুদের দের জন্য এই ফ্রেব্রিক এর কাপড় সবচেয়ে বেশি কমফোর্টেবল।

জর্জেট কাপড়ে এমব্রয়ডারি: সুতির কাপড়ের পাশাপাশি এ দেশে বরাবরই জর্জেট কাপড় সবার খুব প্রিয়। জর্জেট কাপড় খুব পাতলা হওয়ার ফলে সহজেই সবাই দীর্ঘক্ষন পরে থাকতে পারে।এছাড়া এই কাপড় ধৌত করতে সহজ, আয়রন করার ঝামেলা নেই। উৎসবের আগে বা পরে এইসব ঝামেলা মুক্ত থাকার কারনে তরুণী থেকে যুবতীরা বেছে নেয় জর্জেট কাপড়ের শাড়ী। জর্জেট কাপড়ে মেশিন এমব্রয়ডারি এর কাজ জর্জেট কে আরো গর্জিয়াস লুক দেয়।ফাল্গুলের কোনো দাওয়াত বা পার্টি এর জন্য জর্জেট শাড়ী-পাঞ্জাবি সব থেকে বেশি মানানসই।

বাংলাদেশের বিভিন্ন টপ ফ্যাশন হাউস, অনলাইন ফ্যাশন হাউস সবার মাঝেই বিগত তিন-চার বছরের ‘ফাল্গুন কালেকশন’ এ এইসব ম্যাটেরিয়ালের অধিপত্যে বিশেষ ভাবে লক্ষ্য করা গিয়েছে। এ দেশের ডিজাইনাররা এ বছরেও এই সব ফ্রেব্রিক নিয়েই কাজ করেছে তাই তো এ বছরের ফাল্গুতেও নারী-পুরুষ সবার গায়েই এই কাপড়ের পোশাকের দেখা মিলবে।

বি দ্র: ছবি কালেক্টেড

Writer Information

Name: Nure Arfi
Semester : Second year,First Semester
Batch: 39
Ahsanullah University Of Science And Technology.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Post

Most Popular

Related Post

Related from author