Home Industry Review বিশ্বব্যাপী সমাদৃত Raymond Group

বিশ্বব্যাপী সমাদৃত Raymond Group

The Raymond Group,১৯২৫ সালে যাত্রা শুরু করার পর থেকেই পণ্যের গুনমান,ক্রেতাদের বিশ্বস্ততা এবং বিশ্বজুড়ে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব রক্ষা করে কাজ করে আসছে।Raymond টেক্সটাইল এবং পোশাক খাত বিভিন্ন দেশের জাতীয় অর্থনীতি সহ আন্তর্জাতিক বাজারেও এক বিশেষ ভুমিকা রাখছে।এক বিলিয়নেরও বেশি গ্রাহকের পৃষ্ঠপোষকতা উপভোগ করে Raymond Group।বিগত ৯ দশক ধরে ধারাবাহিকভাবে বিশ্বমানের পণ্যগুলো গ্রাহকদের কাছে সরবরাহ করে আসছে Raymond ব্র‍্যান্ড।

টেক্সটাইল এর সব দিক থেকে বিবেচনা করলে দেখা যায় প্রস্তুতকারক হিসেবে,Raymond “বিশ্বের সেরা ফেব্রিক” উৎপাদন করে থাকে।Raymond ব্র‍্যান্ডের ১১০০ এরও বেশি এক্সক্লুসিভ স্টোর ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে বিশ্বের ৩৮০টির ও বেশি শহরে এবং ভারতে ২০০০০ এরও বেশি বিক্রয় কেন্দ্র রয়েছে।বছরের পর বছর ধরে তৈরিকৃত Raymond ব্র‍্যান্ডের নকশাগুলো ৫৫ টি দেশ জুড়ে গ্রাহকদের পছন্দসই হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে।

শার্টিং কাপড়ের জন্য বিশ্বজুড়ে খ্যাত Raymond ব্র‍্যান্ড।OTC Space,Denim Space প্রতিটি জায়গায়ই নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখছে।বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় জিন্সওয়্যার উৎপাদক হিসেবে পরিচিতি আছে Raymond Brand এর।তাদের তৈরি কাপড় আরও অনেক নামীদামী ব্র‍্যান্ডের কাছেও সরবরাহ হয়ে থাকে।প্রতিটি গ্রাহকের নিজস্ব স্বাদ,সঠিক মাপ এর উপর বিবেচনা করেই তাদের প্রতিটি পণ্য তৈরি হয়।

Raymond Group এর হেডকোয়ার্টার ভারতের মুম্বাই এ অবস্থিত। The Raymond Group এর নিজস্ব Park Avenue,Raymond Brand,Raymond Fine Fabrics,Color Plus,Ethnix,The Raymond Shop সহ আরও অনেক ব্র‍্যান্ড রয়েছে। Raymond(Made to Measure) এবং Raymond(Custom Tailoring) এর মাধ্যমে ভোক্তাদের কি ধরনের সুবিধা গুলো দিয়ে আসছে তা সম্পর্কে আলোচনা করা হলোঃ

Suiting : বিশ্বজুড়ে পশমি সুতার স্যুটিং ফেব্রিক উৎপাদন এর জন্য খ্যাত Raymond।তাদের এই পশমি সুতার স্যুটিং ফেব্রিক ভারতের স্যুটিং ফেব্রিক স্পেস এ ৬০ শতাংশ এর বেশি অংশ জুড়ে আধিপত্য করছে।ভারতের ভাপি(গুজরাট),ছিন্দোয়ারা(মধ্যপ্রদেশ) এবং জলগাঁও(মহারাষ্ট্র) এ অবস্থিত Raymond এর অত্যাধুনিক ফেব্রিক উৎপাদনকারী কেন্দ্র গুলোর উল,পলি-উল,সিল্ক,পলিষ্টার ভিসকোস ব্লেন্ড,কটন ব্লেন্ড,লিনেন ব্লেন্ড এবং অন্যান্য প্রিমিয়াম ব্লেন্ড এর ৩৮ মিলিয়ন মিটার স্যুটিং ফেব্রিক উৎপাদন ক্ষমতা রয়েছে। এবং এই ফেব্রিক গুলো “Raymond Fine Fabrics” এর অধীনে বিক্রয় করা হয়।এবং নিঃসন্দেহে এটি সবচেয়ে পছন্দনীয় ব্র‍্যান্ড গুলোর মধ্যে রয়েছে।

Shirting : Raymond শার্ট এর জন্য কিছু সেরা ফেব্রিক এর উৎপাদন করে থাকে।ফ্যাশন ট্রেন্ড এবং উদ্ভাবনী ডিজাইন এর উপর ভিত্তি করে ফেব্রিক গুলো তৈরি করা হয়ে থাকে।”Raymond Luxury Cottons” বিশ্বের সেরা 340s count cotton এবং 150 lea pure Linen Fabric উৎপাদন করে থাকে।২৬ মিলিয়ন মিটার ফেব্রিক উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন কেন্দ্রটি মহারাষ্ট্রের কোলাহাপুর এ অবস্থিত, দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক ব্র‍্যান্ডগুলোর জন্য উচ্চমূল্যের কম ওজনের সুতি এবং লিনেন শার্টিং ফেব্রিক উৎপাদন করে থাকে।এবং এই ফেব্রিক গুলো “Raymond Fine Fabrics” এর অধীনে বিক্রয় করা হয়।

Garmenting : Raymond Group এর সম্পূর্ণ মালিকানাধীন Silver Spark Apparel Ltd(Suits),EverBlue Apparel Ltd(Jeanswear) এবং Celebrations Apparel Ltd(Shirts) এর মাধ্যমেই গার্মেটিং এর ব্যবসায় প্রবেশ করে।এখান থেকে উৎপাদিত পণ্য শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক ব্র‍্যান্ডগুলোর কাছে সরবরাহ হয়ে থাকে।উৎপাদনকৃত High-end Suits,Jackets,Trousers,Shirts গুলো যুক্তরাষ্ট্র,ইউরোপ এবং জাপানে রপ্তানি করা হয়ে থাকে।Silver Spark Apparel Ltd একমাত্র ভারতের উৎপাদনকারী যারা অতন্ত্য দক্ষতার সাথে ক্যানভাস স্যুট তৈরি করতে সক্ষম।

Retail : ১৯৫৮ সালে Raymond সংগঠিত হয়ে খুচরা ব্যবসার মাধ্যমে অগ্রগামী ছিলো,যা ভারতে টেক্সটাইল বিপ্লবে এক বিশেষ ভুমিকা রেখেছিল। মুম্বাইয়ের বালার্ড স্টেট এর কিংস কর্ণারে প্রথম এক্সক্লুসিভ শোরুম চালু হওয়ার পরে,বিপুল খুচরা ক্রেতার উপস্থিতিই ছিলো ব্র‍্যান্ডটির সাফল্যের ভিত্তি।বর্তমানে Raymond এর ১১০০+ স্টোর বিশ্বের ৩৮০+ শহরে ছড়িয়ে রয়েছে এবং এর সংখ্যা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে।Raymond Ready-to-wear(RRTW),Park Avenue(PA),Color Plus(CP) এবং Parx এই ব্র‍্যান্ডগুলোর হাত ধরে পুরো বিশ্বে উতকৃষ্টমানের ম্যানসওয়্যার পৌছে দিচ্ছে Raymond।গত কয়েক বছর ধরে ২৫৭ টি এক্সক্লুসিভ ব্র‍্যান্ড আউটলেট,৩,৩০০ টি মাল্টি ব্র‍্যান্ড আউটলেট,৮০০ টি Large Formate Store এবং অনলাইন পোর্টাল চালু করেছে Raymond গ্রুপ।www.raymondnext.com এর মাধ্যমে গ্রাহক খুব সহজেই সব ধরনের তথ্য পেতে পারে।তাছাড়া বর্তমান বাজারে ছড়িয়ে পড়েছে Raymond এর ফ্যাশনেবল ছাতা।

Denim : Raymond UCO Denim হলো ভারতের একধরনের বিশেষত রিং ডেনিম।তাদের উৎপাদিত এই ডেনিম আমেরিকা,ইউরোপ,এশিয়া সহ ভারতের দেশীয় বাজারে এক বিশেষ ভূমিকা রাখছে।এর উৎপাদনকেন্দ্র মহারাষ্ট্রের যোভাতমাল এবং ইউরোপের রোমানিয়ায় অবস্থিত এবং এখান থেকে বার্ষিক উৎপাদন ক্ষমতা ৪৭ মিলিয়ন মিটার।সকল ব্র‍্যান্ডের সাথে তাল মিলিয়ে চলছে Raymond এর তৈরি ডেনিমও।Raymond UCO Denim ফ্যাশন সচেতন গ্রাহকদের ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণ করে যাচ্ছে।

Apparel : Raymond Group এর অন্যতম ৪ টি ব্র‍্যান্ড হচ্ছে Ready-to-wear(RRTW),Park Avenue(PA),Color Plus(CP) এবং Parx।মূলত এই চারটি ব্র‍্যান্ড এর মাধ্যমেই বর্তমান বাজারকে অনেক শক্ত ভাবে ধরে রাখতে পেরেছে Raymond।আস্থা ও পণ্যের গুনমান বজায় রাখতে পারায় ভোক্তারা তাদের পণ্যের দিকেই ঝুকে পড়ছেন।প্রতিটি আইকনিক ব্র‍্যান্ডের মধ্যে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে এই ব্র‍্যান্ড গুলো।বিগত কয়েকবছরে ২৫৭ এর মতো এক্সক্লুসিভ স্টোর এর মাধ্যমে পুরো বিশ্বে তাদের চ্যানেল ছড়িয়ে পড়ছে। এছাড়াও Raymond Group, JK Files & Tools এর মাধ্যমে ১৯৪৯ সালের গোড়ার দিক থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং ব্যবসার দিকে যাত্রা শুরু করে।এই সেক্টরে বিভিন্ন ধরনের স্টিল সরঞ্জাম এবং হার্ডওয়্যার উৎপাদন করা হয়।আজ,JK Files & Tools এইসকল পণ্যগুলোর বৃহত্তম উৎপাদনকারী। তাছাড়া Raymond Group এর সহযোগী সংস্থা- Raymond Consumer Care Private Limited এর হাত ধরে FMCG ব্যবসায় প্রবেশ করে।Park Avenue এবং KamaSutra প্রিমিয়াম ব্র‍্যান্ড এর মাধ্যমে হোম কেয়ার সেগমেন্ট এবং যৌন সুস্থতা বিভাগে বিশেষ ভুমিকা রাখছে। ১৯৮৪ সাল থেকে Ring Plus Aqua Ltd এর হাত ধরে Automotive Components ও তৈরি করে আসছে Raymond Brand।

সমাজিক কার্যক্রমে Raymond Group : শুধু মাত্র ব্যবসায়িক কর্মকান্ডেই নয় Raymond Group বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ড ও পরিচালনা করে যাচ্ছে।যার মুল উদ্দেশ্য হচ্ছে সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের কর্মসংস্থান তৈরি করে দেয়া।JK Trust এর মাধ্যমে গবাদিপশু প্রজনন উন্নয়ন কর্মসূচি পরিচালনার মাধ্যমে গ্রামীণ জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।যার মাধ্যমে উৎপাদিত দুধ শিশুদের অপুষ্টি হ্রাস করে শিশু মৃত্যু হার করা সম্ভব হচ্ছে।এই উদ্যোগের মাধ্যমে ভারতের ১১ রাজ্যের ৪৫০০০ গ্রামের ৪৫ মিলিয়ন মানুষ উপকৃত হচ্ছে।

বেকারত্ব দূর করার লক্ষ্যে Raymond প্রতিষ্ঠা করে Skilled Tailoring Institute by Raymond যেখানে বেকার যুবক,মহিলা,সংখ্যালঘু সম্প্রদায় এবং সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের প্রশিক্ষন দেয়া হয়।বর্তমানে কলকাতা,জয়পুর ও লক্ষনৌ এ ৩ টি কেন্দ্র রয়েছে। বছরে ১ লক্ষ দক্ষ টেইলর প্রশিক্ষণের মাধ্যমে একটি শক্তিশালী টেইলরিং ইকোসিস্টেম তৈরির উদ্যোগ ও গ্রহণ করছে Raymond।এখন পর্যন্ত তাদের টেইলরিং হাব রয়েছে ২৫ টি।২০২০ সালের মধ্যে তার সংখ্যা বাড়িয়ে ৫০টি তে নিয়ে যাওয়ার চিন্তাভাবনা করছে। প্রতিটি সেক্টরেই Raymond Group এর উৎপাদিত পণ্যগুলো বিভিন্ন ধরনের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে হয়ে থাকে।বিভিন্ন কৌশল ও উন্নত চিন্তাধারা,সিদ্ধান্তগুলো এই কোম্পানিকে ব্যবসায়িক ক্ষেত্র এবং সমাজসেবা মুলক কার্যক্রম সব দিক থেকেই অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

তথ্যসূত্রঃ www.raymond.in

লেখক

মোহাম্মদ আরশিল আজীম

Batch: 201

Department of Textile Engineering

BGMEA University of Fashion & Technology(BUFT)

Senior Administratorhttp://fb.com/smmorshedshikder
Managing Editor of "Textileengineers.Org"

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Post

Most Popular

Related Post

Related from author