সিটেকে বিজয় দিবস বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

0
296

মহান বিজয় দিবস এবং স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ” টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, জোরারগঞ্জ, চট্টগ্রাম” এ অনুষ্ঠিত হলো বিতর্ক প্রতিযোগিতা -২০২১।

এতে বাছাই পর্বে অংশ নেয়া ৪টি দল থেকে বিজয়ী হয় উক্ত ক্যাম্পাসের ১৪ তম ব্যাচের বিতর্ক দল “চতুরঙ্গ”। অংশ নেয়া বাকি দলগুলো হলো ” মধ্যাহ্ন “, ” Ctec Risers”, “Ctec Nights”। বাছাই পর্বে ” জনসচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমেই করোনা মোকাবিলা সম্ভব ” এবং ” কঠোর আইন প্রনয়ণের দ্বারাই পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা সম্ভব ” এ দু’টি বিষয়ে বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়। অনেক প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক প্রতিযোগিতা শেষে চূড়ান্তপর্বে উঠে মধ্যাহ্ন এবং চতুরঙ্গ।

১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে সকাল ১১ টায় কলেজ অডিটোরিয়ামে চূড়ান্তপর্ব অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন অত্র কলেজের সম্মানিত অধ্যক্ষ জনাব ইন্জিনিয়ার মোঃ আলী আজম রোকন স্যার।

চূড়ান্তপর্বে বিতর্কের বিষয় নির্ধারণ করা হয় ” ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য প্রস্তুত বাংলাদেশ “। এর পক্ষে লড়ে ১২ তম ব্যাচের দল ” মধ্যাহ্ন ” এর সদস্য মাসুম বিল্লাহ, অয়ন পাল ও অমিত দাশ এবং বিপক্ষে লড়ে ১৪ তম ব্যাচের দল ” চতুরঙ্গ” এর সদস্য শিমুল শর্মা, লিংকন দে ও আল মুরাদ।
দু’দলের ই স্বতস্ফুর্ত বিতর্কের পরে বিচারকদের রায়ে বিজয়ী হয় ১৪ তম ব্যাচের দল “চতুরঙ্গ”।
সেরা বিতার্কিক হন রানার্সআপ দল ” মধ্যাহ্ন” এর দলনেতা অমিত দাস।
বিতর্ক প্রতিযোগিতার বাছাই পর্ব এবং চূড়ান্তপর্বে বিচারকের আসনে ছিলেন অত্র কলেজের সম্মানিত সহকারী অধ্যাপক জনাব ইঞ্জিনিয়ার মো: মনিরুজ্জামান চৌধুরী, প্রভাষক জনাব ইঞ্জিনিয়ার মো: সাইফুল ইসলাম, প্রভাষক জনাব আবীর অধিকারী এবং ফোরম্যান জনাব সাঈদ মাহবুব আকন্দ স্যার।
প্রতিযোগিতার পরিচালক হিসেবে ছিলেন সিটেক ক্যারিয়ার ক্লাবের প্রেসিডেন্ট নাজিম উদ্দিন এবং বিতর্কের মডারেটর হিসেবে ছিলেন সিটেক ডিবেটিং ক্লাব এর সভাপতি বিজয় সেন গুপ্ত। তাদের বিচক্ষণতায় অত্যন্ত সুষ্ঠুভাবে প্রতিযোগিতা সম্পন্ন হয়।

প্রতিযোগিতা শেষে অত্র কলেজের প্রভাষক জনাব মোঃ ত্বরিকুল ইসলাম স্যারের সঞ্চালনায় মহান বিজয় দিবসের গৌরবময় ইতিহাস ও আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধ নিয়ে আলোচনা সভা এবং পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়।

বিতর্ক প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহন আর সরব উপস্থিতির মাধ্যমে বিজয় দিবসের এমন সুন্দর আয়োজন সম্পন্ন হয়।

রিপোর্ট প্রস্তুতকরনে: আল মুরাদ, ১৪তম ব্যাচ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here