Saturday, April 20, 2024
More
    HomeRMGWomen's Fashion Industry এর সম্ভাব্যতা

    Women’s Fashion Industry এর সম্ভাব্যতা

    আমাদের গ্লোবাল অ্যাপ্পারেল ও ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রিতে Women’s fashion নিঃসন্দেহে একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব বিস্তারকারী ক্ষেত্র হিসেবে বিবেচিত। এর সম্ভবত কারন হিসেবে বলা যেতে পারে যে, মহিলারা অনেক বেশি ফ্যাশন সচেতন এবং এই বর্তমান ফাস্ট ফ্যাশনের যুগে নতুন ট্রেন্ড সম্বলিত কোনো একটি পোশাক সম্পর্কে খোঁজ-খবর রাখার আগ্রহ। অবাক করার মত তথ্য এই যে, সারা বিশ্বের Women’s fashion এর মার্কেট প্রাইজ প্রায় ১১৭.৬ বিলিয়ন ইউএস ডলার। বর্তমান রেকর্ড এবং ধারাবাহিক বাজার প্রবাহ অনুযায়ী, Women’s Fashion Industry ২০২৫ সালের মধ্যে প্রায় ৫ শতাংশে উন্নীত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। আর এই প্রবৃদ্ধি নারীর ক্ষমতায়ন এবং কর্মজীবী ​​নারীর সংখ্যা বৃদ্ধিকে নতুন ভাবে ত্বরান্বিত করবে। বৃদ্ধি পাবে নতুন নতুন নারী উদ্যোক্তার সংখ্যা।

    বর্তমান সময়ে, ইন্টারনেটের দৌলতে Women’s Fashion Industry নতুন করে গতি পাচ্ছে। এই ইন্টারনেট এর মাধ্যমে অ্যাপ্পারেল সাপ্লাই চেইনের প্রতিটি ধাপের কাঁচা মাল সরবরাহকারী থেকে শুরু করে গ্লোবাল মার্কেটের ইউজার পর্যন্ত সবাই একটি সাধারন প্ল্যাটফর্মে আসতে পেরেছে। এর ফলে ভার্চুয়াল ই-কমার্স এর শুরু হচ্ছে। Women’s Apparel Manufacturer অনেক সহজেই তাদের টার্গেট মার্কেট ধরতে পারছে। বিশ্বব্যাংকের মতে, বিশ্বব্যাপী মহিলাদের শ্রমশক্তি প্রায় ৩৯% এবং এই সংখ্যা দিনে দিনে বাড়ছে যা সাম্প্রতিক সময়গুলিতে লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

    অনলাইনে মহিলাদের এঙ্গেজমেন্ট লেভেলও দিনে দিনে বেড়ে যাচ্ছে। কেননা একটি ই-কমার্স সাইট থেকে যখন কোনো একজন মহিলা তার পছন্দসই কোনো পোশাক কিনবেন, তখন সমগ্র লেন-দেনই অনেকটা স্বাধীন থাকে। আর এই জিনিটিকে ভিত্তি ধরে, বর্তমান সময়ে অনেক ব্যবসায়ী এবং অ্যাপ্পারেল ম্যানুফেকচারারগন মূলধন বিনিয়োগ করছে। যার কারনে Women’s Fashion Industry এর মার্কেট প্রাইজ ক্রমশই বৃদ্ধি পাচ্ছে।

    মহিলাদের ফ্যাশন শিল্পের বৃদ্ধি কেবল বিশ্বজুড়েই প্রসারিত হচ্ছে না বরং মহিলাদের কর্মসংস্থান বাড়িয়ে তুলতেও সহায়তা করছে। আমরা যদি শুধু মাত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দিকে তাকাই, তাহলে দেখতে পাবো যে, তাদের ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রি ২ মিলিয়ন মানুষের বিশাল বড় এক কর্মযজ্ঞের ক্ষেত্র। যারা কিনা ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রি সম্পর্কিত বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করে যাচ্ছে। যেখানে একজন কর্মজীবী মানুষের গড় বার্ষিক মজুরি ২৬,০০০ ডলার থেকে শুরু করে ৮৪,০০০ ডলার পর্যন্ত হয়ে থাকে। তাছাড়াও, এই মহিলা ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রিতে যারা শিক্ষিত এবং স্বল্প-শিক্ষিত উভয় গোষ্ঠীই কিন্তু কাজ করতে পারছে।

    এই Women’s Fashion Industry এর ক্ষেত্রে, ইউরোপের আবার ফ্যাশন সম্পর্কিত একটি সমৃদ্ধ ইতিহাস রয়েছে এবং আমরা যত মিলিওনিয়ার লেভেলের ফ্যাশন ব্রেন্ড গুলোকে আজকে জানি যেমনঃ Prada, Dior, Versace, Chanel, Gucci এগুলোর সবাই কিন্তু ইউরোপ থেকেই আগত। মহিলাদের ফ্যাশনে আরও বেশি বিকাশের দিকে পরিচালিত আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বাজার হল যুক্তরাষ্ট্র, যা ইতিমধ্যে বলা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক কোম্পানি Nike এর Women’s Fashion Industry এর বার্ষিক বাজার মূল্য প্রায় ১,০৫,০০০ ডলার। Women’s Fashion Industry এর এই পরিসংখ্যানগুলো দেখার পর, আমাদের উচিত তথাকথিত প্রোডাক্ট এর সাথে সাথে এই Women’s Wear এর প্রতি জোর দেওয়া।

    RELATED ARTICLES

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    - Advertisment -

    Most Popular

    Recent Comments