Home Technical Textile টেক্সটাইলে প্রযুক্তির উৎকর্ষতা

টেক্সটাইলে প্রযুক্তির উৎকর্ষতা

টেক্সটাইল !!

নামটা সবারই পরিচিত। টেক্সটাইল সম্পর্কে নতুন করে বলার কিছু নেই। কারণ আমরা কমবেশি এই সেক্টর সম্পর্কে জানি। তবুও আমি আরও কিছু বলতে চাই। আমাদের বেশিরভাগ মানুষের একটা কমন সমস্যা আছে।যাদের এই সেক্টর সম্পর্কে একটু জ্ঞান কম তারা টেক্সটাইল কথাটা মাথায় আসলেই শুধু গার্মেন্টস এর কথা চিন্তা করি। অথচ এ ধারণা সম্পূর্ণই ভুল। হ্যাঁ গার্মেন্টস তো বটেই কিন্তু শুধু কি গার্মেন্টস? গার্মেন্টস ছাড়াও যে টেক্সটাইল সেক্টর কতদূর বিস্তৃত হয়তো এ সম্পর্কে অনেকের কোনো ধারণাই নেই। আমি এ সেক্টরের একটা দিক তুলে ধরতে চাই যেটা সম্পর্কে অনেকেরই হয়তো ধারণা কম।আর সেটা হলো টেকনিক্যাল টেক্সটাইল।নিচে এ সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরছি:

ফাইবার বা ফেব্রিকের গুনাবলি Developed করে নতুন ধাসের টেক্সটাইল প্রোডাক্ট তৈরি করার নামই হলো Technical Textile.

Technical Textile পন্য আমরা যেসব ক্ষেত্রে ব্যবহার করি সেগুলো হলো :

Medi Tech
Agro Tech
Build Tech
Cloth Tech
Geo Tech
Homo Tech
Mobile Tech
Pro Tech
Sport Tech

আমাদের অনেকেরই জানার আগ্রহ থাকে Medi tech কি ও মেডিকেল সেক্টরের কোন কোন কাজে আমরা টেক্সটাইল ব্যবহার করি। আজকে মেডি টেক নিয়ে মোটামোটি ধারনা আলোচনা করবো।

Medical Textile:

মেডিকেল টেক্সটাইল টেকনিক্যাল টেক্সটাইলের একটি অন্যতম টপিক। টেক্সটাইল ম্যাটেরিয়ালকে মেডিসিন,হেলথকেয়ার,পার্সোনাল কেয়ার ইত্যাদিতে প্রয়োগের আধুনিক প্রক্রিয়াকে মেডিকেল টেক্সটাইল বলে। মেডিকেল টেক্সটাইল হেলথকেয়ার টেক্সটাইল নামেও পরিচিত। আধুনিক যুগে টেক্সটাইল ম্যাটেরিয়ালকে মেডিকেল টেক্সটাইলে প্রয়োগ করার জন্য টেক্সটাইল ম্যাটেরিয়ালের যেসব গুনাবলি থাকার দরকার সেগুলো হলো:

Softness
Lightness
flexibility
Absorbency
Filtering

মেডিকেল টেক্সটাইলে ন্যানো টেকনোলোজি এর ব্যবহার:

ন্যানো টেকনোলোজি আধুনিক মেডি টেক এ নতুন মাত্রা যোগ করছে। আধুনিক মেডিটেক এ জীবানুনাশক ফাইবার তৈরিতে ন্যানো টেকনোলোজি গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে। এ ক্ষেত্রে মেডিটেকে ব্যবহৃত ফাইবারকে ন্যানো সিনথেটিক ফাইবারের সাথে treat করে জীবানুনাশক ফাইবার তৈরি করা হয়। ন্যানো টেকনোলোজি এর বদৌলতে প্রাপ্ত জীবানু নাশক এজেন্ট বিভিন্ন Toxic এজেন্ট মানব শরীরকে রক্ষা করে।

মেডিটেক এর শ্রেনীবিন্যাস:

Non-Implantable Material: wound dressing, bandages, plasters.
Extracorporel Device: Artificial kindey,Artificial liver and Artificial lung.
Implantable Material: Sutures,vascular graft,Artificial ligament, Artificial joint.
Helthcare : bedding, clothing, surgical gowns etc.

মেডিটেক প্রোডাক্ট:

Wound care:

Wound care শরীরের ইনফেকশনে বাধা দেয় ক্ষত স্হান থেকে রক্ত শোষন করে।

Bandages:

Wound care এর স্তর সঠিক পজিশনে বসানোর জন্য ব্যান্ডেজ ব্যবহার করা হয়। ব্যান্ডেজ তৈরিতে Woven,non-woven ও knitted fabric ব্যবহার করা হয়।

Extracoporeal Device:

Extracoporeal Devic হলো মেক্যানিকাল অর্গান। কৃত্রিম পরিশুদ্ধিকরন, কৃত্রিম কিডনি, কৃত্রিম লিভার ইত্যাদি হলো Extracoporeal Device। আধুনিক টেক্সটাইল টেকনোলোজি Extracoporeal Device তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে।

Implantable Material:

এই ধরনের ম্যাটেরিয়াল ব্যবহার করা হয় শরীর মেরামত করার কাজে। কৃত্রিম অঙ্গ তৈরি করে ক্ষতিগ্রস্হ অঙ্গ অপসারন করার কাজে এটি ব্যবহৃত হয়। যেমন : Artificial Ligaments.

যদিও বাংলাদেশে টেকনিক্যাল টেক্সটাইল এর চেয়ে এ্যাপারেল বেশি বিখ্যাত।কিন্তু বিশ্বের অনেক দেশ আজ টেকনিক্যাল টেক্সটাইল এর মাধ্যমে অভাবনীয় অনেক কিছু করতে সক্ষম হয়েছে।একদিন বাংলাদেশও ইন্ শা আল্লাহ্ এ্যাপারেলের পাশাপাশি টেকনিক্যাল টেক্সটাইল এ এগিয়ে যাবে।কারণ আমরা জানি বর্তমান যুগ হলো তথ্য প্রযুক্তির যুগ।আর আমরা সবাই জানি বাংলাদেশ তথ্য প্রযুক্তির ক্ষেত্রে কতটা এগিয়ে যাচ্ছে।খুব দ্রুত হয়তো বাংলাদেশও টেকনিক্যাল টেক্সটাইলের চাহিদা বেড়ে যাবে ইন্ শা আল্লাহ্।

Source:
1.www.technicaltextile.net
2.www.scitechnol.com
3.www.kyangyhe.com

Writer:

Ifta Khairul Umman
Batch: 2018
Department of Textile Engineering
Khulna University of Engineering & Technology

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Post

Most Popular

Related Post

Related from author