Home Technical Textile শরীরের তাপেই পরিবর্তন হবে পোষাকের আকার

শরীরের তাপেই পরিবর্তন হবে পোষাকের আকার

টেক্সটাইল শিল্পে বরাবরই পরিবর্তনের ভিন্ন ঝাঁচ আনতে অধীর আগ্রহী একদল গবেষকরা। সম্প্রতি এমনই এক যুগান্তকারী উদ্ভাবনের সাক্ষী হতে চললো University of Minnesota এর Design of Active Materials  & Structures Lab (DAMSL) এবং Wearable Technology Lab (WTL) শাখার গবেষকরা। উদ্ভাবনটি মূলত তাপমাত্রায় প্রতিক্রিয়াশীল। এজন্যই এটি সংকোচন ও প্রসারন ঘটতে সক্ষম। অধ্যাপক জুলিয়ানা আবেল এবং ব্র্যাড হলশুহ এর নেতৃত্বে ওনাদেরই শিক্ষার্থী কেভিন এসচেন এবং র্যাচেল গ্রানবেরি এ গবেষনায় নিজেদের গৌরবান্বিত করে।গবেষনাটি সম্প্রতি Advanced Materials Technologies এ প্রকাশিত হয়েছে।

ড. হলশুহ বলেন এটি মূলত নন-বডিতে প্রয়োগ অর্থাৎ রোবটিক টেক্সটাইল তৈরির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করবে। এ অ্যাপলিকেশনটি দুটো কাজে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে। প্রথমত শরীরের কার্যকরী শক্তি কিংবা তাপের কোনো ব্যাবহার ছাড়াই ব্যাবহার করা সম্ভব,দ্বিতীয়ত শরীরের সাথে কাপড়টি পর্যাপ্ত ফিটিংস না হলেও অনায়েসেই খাপ খায়িয়ে নিতে পারবে।

ফেব্রিকের বুনন বা নিটিং এ আমরা সচারাচর যেসব লুপ দেখি, তার কোনোটাই এখানে ব্যাবহার করা হয়নি। বরং একটি চমৎকার বুনন শিল্পের প্রয়োগ দেখানো হয়েছে না ফ্রেবিকটাকে তুলনামূলক আকর্ষনীয় করে তুলেছে যাকে আমরা বলি  shape memory alloys (SMAs) । এর কারনেই মূলত এর আকার সহজেই পরিবর্তন হয়।

জুলিয়ানা আবেল বলছিলেন-আমাদের ঐতিহ্যগত প্রযুক্তির অবকাঠামোগত কিছু পরিবর্তন বা অগ্রগতির প্রয়োজন। আমাদের উদ্ভাবিত প্রযুক্তিরও কিছু পরিবর্তন করতে হবে। এখানে আমরা বাহ্যিক কোনো  শক্তি প্রয়োগ  ছাড়াই আমরা শরীরের তাপমাত্রা কিভাবে পরিমাপ করা যায় সেটারও গবেষনা করছি।কাঠামোগতভাবে, আমরা মানবদদেহের কমপ্লেক্স গঠনগুলোকে যাতে সহজেই রপ্ত করতে পারে এমন কিছুরও উদ্ভাবন করার চেষ্টা করছি।একইভাবে শরীরচর্চার মাধ্যমে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ পতঙ্গের চালচলনের সাথে ম্যাকানিক্যাল পারফর্মেন্স এর তুলনা করারও চেষ্টা করছি। আশা করছি এতে করে খুব সহজেই আমরা ভালো একটা সুফল আনতে পারবো।

তিনি আরো বলেন,আমাদের গবেষনার ফলাফল অনেকটা এরকম ছিলো- এধরনের ফেব্রিক বা পোষাকের নিটগুলো কাস্টমস আকারে থাকবে, যা সেন্সরের মাধ্যমে সক্রিয় হয়ে উঠবে এবং যেখানে প্রাসারিত হওয়া দরকার সেখানে প্রসারিত হবে যেখানে সংকোচন হওয়া দরকার সেখানে সংকোচন হবে। উদাহরন স্বরূপ হাটুর পিছনের জায়গাটার কথাই ধরা যাক। স্বাভাবিকভাবে কিছুক্ষন বসে থাকলে সেখানে ফাকা জায়গার সৃষ্টি হয়, কিন্তু কিছুক্ষনপর আবার তার নির্ধারিত অবস্থায় ফিরে যেতে হয়। তাই সময়ের সাথে সাথে প্রয়োজন অনুসারে এটি একটি নিজস্ব ফর্মূলা মেনে সংকোচন প্রসারন ঘটবে যা ব্যাবহার কারীর জন্য অনেকাংশেই স্বস্থিদ্বায়ক।

এ আর্টিকেল সম্পর্কিত ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন-

Writer:
Khaladur Rahman Siam
9th BATCH-NITER
Core Team Member-TES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Post

Most Popular

Related Post

Related from author