Select Page

Smart clothing এর আদ্যোপান্ত

Smart clothing এর আদ্যোপান্ত

বর্তমান সময়ে প্রযুক্তি গত উন্নতি আর বিপ্লব যে তথা-কথিত পোশাক পরিচ্ছদের সংজ্ঞাকেই পরিবর্তিত করে দিয়েছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এর রয়েছে বহুমুখী ফাঙ্কশন। যেমন; স্মার্ট পোশাকের যুগে এটি আপনার ফিটনেস গাইড, কেয়ারটেকার এবং মাল্টিটাস্কিং ডিভাইস হিসেবেও ব্যবহৃত হতে পারে। পদ্ধতিগত পারফর্মেন্সের কথা বিবেচনা করলে, Smart clothing সম্পূর্ণভাবেই basic clothing এর থেকে ভিন্ন। Smart clothing এর ফাঙ্কশনের মধ্যে রয়েছে; মানবদেহের বিপাকীকরণের সংবেদনশীলতা এবং তদারকি, যার মধ্যে আর্দ্রতা, তাপমাত্রা এবং শ্বাস প্রশ্বাসের ছন্দ, অভ্যাস, আচরণ এবং মানসিক এবং শারীরিক সুস্থতা রক্ষণাবেক্ষণ অন্তর্ভুক্ত। আর এই Smart clothing এর মার্কেট শেয়ার এবং ভবিষ্যৎ চাহিদাও আকাশচুম্বী।

একটু ঠাণ্ডা মাথায় চিন্তা করলে বুঝাই যায়, পোশাকই হল একমাত্র মাধ্যম যা সবসময় বা সমস্ত পরিস্থিতিতে মানবদেহের সাথে লেগে থাকতে পারে। দ্বিতীয়ত, ত্বকের সংস্পর্শে থাকার কারনে এটি সহজেই শরীরের গতিবিধি অনুধাবনের উপাদান হয়ে উঠতে পারে। তৃতীয়ত, একটি ক্লদিং ফ্যাব্রিক প্রকৃতিগত ভাবেই নমনীয় এবং একটি পছন্দসই আকারে পরিবর্তিত করা যেতে পারে। আবার এটি বিদ্যুৎ বহনকারী মিডিয়াগুলির জন্য সহায়তা হিসাবে কাজ করতে পারে। ধাতুযুক্ত তন্তু, সুতা বা ফ্যাব্রিকের সংমিশ্রণও মানবদেহে স্বাচ্ছন্দ্য বয়ে আনতে পারে। এই Smart clothing সহজেই ম্যান-মেশিন এর মধ্যকার মিথস্ক্রিয়া প্রক্রিয়ার জন্য একটি মাধ্যম হতে পারে।

লোকেরা এখন সাধারণত মোবাইল ফোন, উন্নত স্মার্ট হ্যান্ড ওয়াচ, হেডফোন, আইপড এবং ল্যাপটপগুলির মতো বৈদ্যুতিক গ্যাজেটগুলি বহন করে থাকে, যা দিনকে দিন প্রয়োজনীয় হয়ে উঠেছে। এই জাতীয় গ্যাজেটগুলির বিক্রয়ের গ্রাফপেপারে একটি ঊর্ধ্বমুখী বক্ররেখা প্রত্যক্ষ করা যায় এবং এইগুলোর বাজারের পরিমাণ আরও বাড়বে। লোকেরা যদি দিনের মধ্যে বেশিরভাগ সময় এই গ্যাজেটগুলি বহন করে তবে এই দুটি ক্ষেত্র একত্রিত করা ফলপ্রসূ হতে পারে।

এখন স্মার্ট টেক্সটাইল এর কিছু শ্রেণী সম্পর্কে জানা যাক; এক শ্রেণির স্মার্ট টেক্সটাইলকে বলা হয় ‘ই-টেক্সটাইল’, যা টেক্সটাইল এবং বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্সের সংমিশ্রণ। পরিবর্তিত টেক্সটাইল উপাদান এবং ক্ষুদ্রাকৃতির ইলেকট্রনিক ডিভাইসগুলির সমন্বয়ে এই স্মার্ট পোশাক তৈরি করা হয়ে থাকে। এগুলি নকশা এবং প্রয়োগ অনুযায়ী বিভিন্ন পরিস্থিতিতে বিশেষ ফাংশন সরবরাহকারী সাধারণ কাপড়ের মতো আচরন করে থাকে। মাইক্রো-চিপস, মাইক্রোফোন, এলইডি এর মতো বৈদ্যুতিক গ্যাজেটগুলিকে টেক্সটাইলগুলির সাথে সমন্বয় করে Smart cloth তৈরি সম্ভব।

স্মার্ট পোশাকগুলির বিবর্তনকে নিম্নোক্তভাবে উপস্থাপন করা যেতে পারে। প্রথম প্রজন্মের স্মার্ট পোশাকগুলি সহজেই বহনযোগ্য ডিভাইসগুলি বহন করার জন্য প্রয়োজনীয় পোশাকগুলিতে স্থান সরবরাহ করেছিল। পরবর্তী প্রজন্ম পোশাকগুলিতে ইলেকট্রনিক ডিভাইসগুলিকে একীভূত করে। উদাহরণস্বরূপ, ফাইবার-ভিত্তিক বৈদ্যুতিক তার যা ধাতু এবং ফাইবার ব্যবহার করে তৈরি করা হয় এবং ছোট ইলেকট্রনিক ডিভাইসগুলি কাপড়ের সাথে সংযুক্ত থাকে। স্মার্ট পোশাক হল নতুন ধরণের পোশাক যা ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং এবং পোশাক নকশাকে একত্রিত করে তৈরি করা হয়। এইখানে স্মার্ট ম্যাটেরিয়াল এর প্রাথমিক কাঁচামালগুলো হল;

১) কার্বন/মেটাল পার্টিকেল।

২) ফিলিং সিনথেটিক ইয়ার্ন।

৩) কন্ডাক্টিভ পলিমার সংমিশ্রিত ফাইবার।

৪) কন্ডাক্টিভ ইঙ্ক।

About The Author

Leave a reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




Grow up your business

TextileEnginerrs










March 2020
MTWTFSS
« Feb  
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031