Tuesday, May 28, 2024
More
    HomeCampus Newsবরিশাল টেক্সটাইলের বার্ষিক প্রকাশনা 'কীর্তনখোলা১৮'

    বরিশাল টেক্সটাইলের বার্ষিক প্রকাশনা ‘কীর্তনখোলা১৮’




    প্রসেনজীৎ পাল, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি

    কীর্তনখোলা হলো শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবত টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের নিজস্ব বার্ষিক প্রকাশনা।

    প্রতিবছর এটা প্রকাশ করে আমাদের কলেজ কর্তৃপক্ষ, কিন্তু দুর্ভাগ্য বিষয় হলো এই কীর্তনখোলা জানি না, কত জন মানুষ পড়ে, শুধু আমি এতটুকু বলব কীর্তনখোলা যারা লেখে, যারা লেখা দেয় তাদের প্রত্যেকটা লেখা অনেক সুন্দর কিন্তু বিশেষভাবপ কিছু লেখা অনেক তথ্য বহুল এবং সুন্দর লেগেছে,
    যার কারণে তথ্য গুলো সবার সাথে শেয়ার করা হল:



    এগ্রো টেক্সটাইল প্রডাক্টস এন্ড প্রপার্টিস
    ইঞ্জিনিয়ার এমডি আব্দুল কাদের বেপারী (অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর টেক্সটাইল)

    এন অভারর্ভিউ বায়োনিক ফিনিশেস এন্ড স্মার্ট টেক্সটাইলস বায়োকেমিক্যাল ফিশিং
    ইঞ্জিনিয়ার নয়ন চন্দ্র ঘোষ (অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর)




    টেক্সটাইল বিদেশে উচ্চশিক্ষা গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য এম এম হোসাইন (সহকারী অধ্যাপক গণিত)

    অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এমডি আলমগীর হোসেন এম.এস.সি ইন সি (কম্পিউটার অপারেটর)

    গুরুত্বপূর্ণ মোবাইল অ্যাপস এবং এর ব্যবহার
    মোঃ সেলিম আকতার (সহকারী অধ্যাপক)

    একবার দেখব বলে
    আকতার হোসাইন, বি.এস.সি( পঞ্চম ব্যাচ)
    সত্যিই অসাধারণ গল্প টা,চরিত্রের মাঝে হারিয়ে গিয়েছিলাম, অপূর্ণতা রয়ে গেল ভাই



    শূন্য পূর্ণতা
    রেহনুমা তারান্নুম, বি.এস.সি (ষষ্ঠ ব্যাচ)
    ভিক্ষাবৃত্তি করেও যে সন্তানকে সুশিক্ষা দেওয়া যায় তার সুন্দর একটা উদাহরণ তুলে ধরেছেন গল্পে ভালো লাগছে অনেক অাপু।

    কল্পকাহিনী দৈত্যের গিফট
    তৌকির তমাল,বি.এস.সি (ষষ্ঠ ব্যাচ)
    লেখার মাঝে একটা গভীর রহস্যের একটা গন্ধ
    আমার কাছে ঠিক অপূর্ণতায় রয়ে গেল




    নীলের শেষ লেখা
    ইমতিয়াজ শিহাব ডিপ্লোমা তৃতীয় পর্ব
    হাসিবুর রহমান কিরণ, এই লেখাটা পড়তে এই নামটার কথা মনে পড়ল বাকিটা হয়তো বুঝতে পারবেন কেন।

    খেই
    মোস্তাফিজুর রহমান,জেঅাই
    গল্পের মাঝে মধ্যবিত্তের একটা প্রতিচ্ছবি সুন্দরভাবে আলোকপাত করা হয়েছে। মানুষকে সহায়তা করে নিজেও যে সহায়তা পাওয়া যায় তার সুন্দর একটা উদাহরণ হিসেবে এখানে তুলে ধরা হয়েছে। গল্পের পরতে পরতে দারিদ্র্যের যে সীমারেখা রয়েছে তা বোঝানোর কিঞ্চিৎ প্রচেষ্টা। সর্বোপরি কষ্ট লেগেছে।

    কবিতা এর অংশ থেকে যে কবিতা গুলো সব থেকে বেশি ভালো লাগছে আমার কাছে তাদের নাম ও কবিতার নাম উল্লেখ করা হলো নিম্নে

    ১.তোমার অনুভবে,
    অসীমা মল্লিক
    (প্রভাষক)

    ২.অপেক্ষা
    মোঃ হামিম আশরাফি তুরিন
    বি.এস.সি( সপ্তম ব্যাচ)

    ৩.মা
    সিফাত ইবনে মঞ্জুর
    বি.এস.সি( সপ্তম ব্যাচ)

    ৪. স্পার্কিং 94
    মাইনুল ইসলাম আশিক
    বি.এস.সি।,ষষ্ঠ ব্যাচ

    ৫.নতুন দিনের প্রত্যাশা
    চৈতি হালদার, ডিপ্লোমা পঞ্চম পর্ব,

    ৬.স্বপ্নের খোঁজে
    জাহিদ হাসান শিমুল,ডিপ্লোমা পঞ্চম পর্ব

    ৭.সময়
    সজীব মজুমদার, ডিপ্লোমা পঞ্চম পর্ব

    ৮.বাংলার মুখ,
    মোসাঃ উম্মে জাহান চাঁদনী, ডিপ্লোমা সপ্তম পর্ব

    ৯.কৃতজ্ঞতা
    ডিপ্লোমা তৃতীয় পর্ব



    ১০.তুমি চাইলেই পারতে
    সাবিহা কানিতা, ডিপ্লোমা তৃতীয় পর্ব

    ১১.বাংলার সূর্যোদয়
    হাফসা আক্তার, ডিপ্লোমা দ্বিতীয় পর্ব

    ১২. বদলে গেছে
    শুক্লা বড়াল, ডিপ্লোমা প্রথম পর্ব

    ১৩.কেন সে এমন
    মোঃ মশিউর রহমান, ডিপ্লোমা তৃতীয় পর্ব

    ১৪.হলুদ পাখি
    মোঃ আফসিয়ার রায়হান খান, ডিপ্লোমা পঞ্চম পর্ব


    RELATED ARTICLES

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    - Advertisment -

    Most Popular

    Recent Comments