Friday, February 23, 2024
More
    HomeBTMA, BGMEA & BKMEAবিজিএমইএ নির্বাচনঃ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলো সম্মিলিত পরিষদ

    বিজিএমইএ নির্বাচনঃ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলো সম্মিলিত পরিষদ

    জাহিদ হাসান, নিজস্ব প্রতিবেদক।

    করোনা মহামারীর প্রকোপের মধ্যেও গত রোববার হয়ে গেলো তৈরি পোশাক উৎপাদনকারক ও রপ্তানিকারক মালিকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ’র নির্বাচন। নির্বাচনে সভাপতি পদে জয়ী হয়েছেন জায়ান্ট গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফারুক হাসান।

    রোববার সকাল ৯ টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ২০২১-২৩ মেয়াদের পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ৩৫ টি পরিচালক পদে ফারুক হাসানের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত পরিষদ ও এবিএম শামসুদ্দিন মিয়ার নেতৃত্বাধীন ফোরাম প্যানেলের সর্বমোট ৭০ জন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।নির্বাচনে ঢাকা অঞ্চল ও চট্টগ্রাম অঞ্চল দুইভাগে বিভক্ত ছিল।ঢাকায় হোটেল রেডিসন ও চট্টগ্রামে বিজিএমইএ’র চট্টগ্রাম অঞ্চল অফিসে নির্বাচন হয়।নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল – ঢাকা অঞ্চলে ১৮৫৩ জন এবং চট্টগ্রামে ৪৬১ জন।মোট ভোট পড়েছে – ঢাকা অঞ্চলে ১ হাজার ৬০৪ টি এবং চট্টগ্রামে ৩৯২ টি।

    নির্বাচনে সর্বাধিক ১২০৪ ভোট পেয়ে সভাপতি হয়েছেন ফারুক হাসান।তিনি হারিয়েছেন ফোরাম প্যানেলের হান্নান গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবিএম শামসুদ্দিন মিয়াকে।নির্বাচনি ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে,নির্বাচন পরিচালনা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরহাত আনোয়ার রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টায় নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা করেন।এতে ফারুক হাসানের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত পরিষদ ৩৫ টি পরিচালক পদের বিপরীতে ২৪ টি পরিচালক পদে বিজয়ী হয়েছে।অন্যদিকে, এবিএম শামসুদ্দিন মিয়ার নেতৃত্বাধীন ফোরাম প্যানেল জয়ী হয়েছে ১১ টি পদে।সম্মিলিত পরিষদ ঢাকা অঞ্চলের ২৬ টি পরিচালক পদের মধ্যে ১৭ টি পদে,চট্টগ্রাম অঞ্চলের ৯ টি পরিচালক পদের বিপরীতে ৭ টি পদে জয়লাভ করেছে।অন্যদিকে,ফোরাম প্যানেল ঢাকা অঞ্চলে ৯ টি পদে ও চট্টগ্রাম অঞ্চলে ২টি পরিচালক পদে জয় পেয়েছে। তবে, বিজিএমইএ’র বর্তমান সভাপতি ফোরাম প্যানেলের প্রার্থী ড. রুবানা হক দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১ হাজার ১৫৭ ভোট পেয়ে পরিচালক পদে জয়ী হয়েছেন। 

    বিজয়ী পরিচালকগণ আগামী ১৬ এপ্রিল সভাপতি ও ৭ জন সহ-সভাপতি দুই বছরের জন্য নির্বাচন করবেন। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ২০ এপ্রিল দায়িত্ব নেবে নবগঠিত এ কমিটি।
    এদিকে ভোট চলাকালীন সময়ে বহিরাগতদের আনার অভিযাগ তোলেন ফোরাম প্যানেলের লিডার এবিএম শামসুদ্দিন মিয়া।তিনি অভিযোগ তোলে বলেন,স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে সম্মিলিত প্রার্থীরা কেন্দ্রের প্রবেশপথে হাজার হাজার লোকের সমাগম ঘটিয়েছেন।তারা বিজিএমইএর সদস্য নন।


    বিজয়ী হলেন যারা


    ঢাকা অঞ্চলঃ 

    সম্মিলিত পরিষদঃ জায়ান্ট টেক্সটাইলের ফারুক হাসান,সেহা ডিজাইনের এস এম মান্নান কচি,তুসুকা ফ্যাশন্সের আরশাদ জামাল দিপু,ক্লাসিক ফ্যাশনের শহীদুল্লাহ আজিম,এনভয় ডিজাইনের শিরিন সালাম ঐশি,উর্মি গার্মেন্টসের আসিফ আশরাফ,ডেনিম এক্সপার্টের মহিউদ্দিন রুবেল,এনভয় ফ্যাশন্সের তানভীর আহমেদ,নিপা ফ্যাশন্সের খসরু চৌধুরী,ব্রাদার্স ফ্যাশন্সের আব্দুল্লাহ হিল রাকিব,টিআরজেড গার্মেন্টসের হারুন অর রশীদ, ইয়াং ফরেভারের রাজীব চৌধুরী,মিসামি গার্মেন্টসের মিরান আলী,ডিজাইন টেক্সট নীটওয়্যারের খন্দকার রফিকুল ইসলাম,লায়লা স্টাইলের ইমরানুর রহমান,সাদমা ফ্যাশন ওয়্যারের নাছির উদ্দিন ও ভিনটেজ ডেনিমের সাজ্জাদুর রহমান মৃধা।

    ফোরাম প্যানেলঃএমজি শার্টেক্সের ড. রুবানা হক, দুলাল ব্রাদার্সের এম এ রহিম ফিরোজ,রাইজিট অ্যাপারেলসের মাহমুদ হাসান খান বাবু, কেইলক নিউএজ বাংলাদেশের আসিফ ইব্রাহিম, সুরমা গার্মেন্টসের ফয়সাল সামাদ,এমজি নীট ফ্লেয়ারের নাভিদুল হক,দেশ গার্মেন্টসের বিদ্যা অমৃত খান, অনন্ত গার্মেন্টসের ইনামুল হক খান বাবুল,ফেব্রিকা নীট কম্পোজিটের মিজানুর রহমান।

    চট্টগ্রাম অঞ্চলঃ

    সম্মিলিত পরিষদঃওয়েল ডিজাইনার্সের সৈয়দ নজরুল ইসলাম,লেগেসি ফ্যাশন্সের তানভীর হাবিব,এএসআর অ্যাপারেলের এ এম শফিউল করিম খোকন,ফোর এইচ অ্যাপারেলের মো. হাসান জ্যাকি,অ্যামেকো ফেব্রিক্সের এম আহসানুল হক,এইচকেসি অ্যাপারেলের রকিবুল আলম চৌধুরী,এনএলজেড ফ্যাশন্সের মোহাম্মদ মেরাজ ই মোস্তফা।

    ফোরাম প্যানেলঃক্লিপটন অ্যাপারেলসের মো. এম মহিউদ্দিন চৌধুরী  ও  চিটাগং এশিয়ান অ্যাপারেলসের মোহাম্মদ আবদুস সালাম।

    আগামী ২০শে এপ্রিল পর্ষদের নতুন সদস্যদের দায়িত্ব নেওয়ার কথা আছে।

    RELATED ARTICLES

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    - Advertisment -

    Most Popular

    Recent Comments